× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৬ জুন ২০১৯, রবিবার
শপথ নিলেন রুমিন ফারহানা

এ সংসদ জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয়

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ১০ জুন ২০১৯, সোমবার, ৯:৫৫

একাদশ জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত নারী আসনে বিএনপির মনোনীত এমপি হিসেবে শপথ নিয়েছেন ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা। গতকাল দুপুরে সংসদ সচিবালয়ের নিজ কার্যালয়ে স্পিকার ড. শিরীন শারমীন চৌধুরী তাকে শপথ বাক্য পাঠ করান । এ সময় জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী লিটন, হুইপ ইকবালুর রহিম, হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন ও ক্যাপ্টেন (অব.) এবি তাজুল ইসলাম এমপিসহ সংসদের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের  সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন। রীতি অনুযায়ী শপথ গ্রহণ শেষে রুমিন ফারহানা শপথ বইয়ে স্বাক্ষর করেন। শপথ গ্রহণ শেষে সংসদ লবিতে উপস্থিত সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন এমপি রুমিন ফারহানা। বলেন, প্রথমবার সদস্য হয়ে সংসদে আসা আমার জন্য আনন্দের। তবে আমি এমন একটি সংসদে যোগ দিতে যাচ্ছি যে সংসদটি জনগণের ভোটে নির্বাচিত না।
সংসদ গঠিত হওয়ার পর থেকেই বলেছি, এটি অবৈধ সংসদ, এখনো দ্ব্যর্থহীন ভাষায় বলছি, এটি অবৈধ সংসদ।

আমি খুব খুশি হব যদি আমার সংসদ সদস্য হবার মেয়াদ একদিনের বেশি না হয়। এই সংসদ বিলুপ্ত করে একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের মধ্য দিয়ে দ্রুত জনপ্রতিনিধিত্বশীল একটি সরকার গঠিত হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। অবৈধ বলছেন তাহলে কেন শপথ নিলেন? জবাবে তিনি বলেন, বিষয়টি খুব পরিষ্কার। এটা হচ্ছে আমাদের গণতান্ত্রিক স্পেস। আমাদের কথা বলার জায়গাগুলো ক্রমেই সংকুচিত হয়ে আসছে। সেই অর্থে দেখতে পাচ্ছি সংসদ একটি ভালো অ্যাভিনিউ, যেটা আমরা আমাদের দলের কথা, দেশের কথা ও মানুষের কথা বলার জন্য ব্যবহার করতে পারি। আর সেই স্পেসটা ব্যবহার করার জন্য আমাদের এই সংসদে আসা। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা সংখ্যাগত দিক থেকে নিশ্চয়ই অনেক কম। তারপরও আশা করছি, সংসদে যদি একজনও ন্যায্য কথা বলেন তাকে যথেষ্ট সময় ও সুযোগ দেয়া হবে।

সরকারের নিজের স্বার্থেই এই সময় ও সুযোগ দেয়া উচিত। দলীয় চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া। তার মামলার মেরিট, তার বয়স, সামাজিক অবস্থান বিবেচনায় তিনি বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী তাৎক্ষণিক জামিন লাভের যোগ্য। তাকে জামিন বঞ্চিত করে কারাগারে রাখা হয়েছে। এর পুরোটাই বেআইনি। তিনি রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার। নিশ্চয়ই সেই বিষয়গুলো নিয়ে সংসদে কথা বলবো। এর আগে গত ২৮শে মে ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানাকে নির্বাচিত ঘোষণা করেন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও ইসির যুগ্ম সচিব আবুল কাসেম। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আসন সংখ্যা অনুপাতে বিএনপি একটি সংরক্ষিত নারী আসন পায়। বিএনপির এমপিরা শপথ নিতে দেরি করায় দীর্ঘদিন সংরক্ষিত আসনটি শূন্য ছিল।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর