× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, সোমবার

মুন্সীগঞ্জে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির প্রি-পেইড মিটার স্থাপনের প্রতিবাদে মানববন্ধন

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ থেকে | ১১ জুন ২০১৯, মঙ্গলবার, ৮:৩৩

 মুন্সীগঞ্জে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির প্রি-পেইড মিটার স্থাপনের প্রতিবাদে মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল ও স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে। গতকাল বেলা ১১টার দিকে শহরের পুরাতন কাচারি এলাকায় শ’ শ’ নারী-পুরুষ এই মানববন্ধনে অংশ নেন। পরে তারা শহরে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। তারা মুন্সীগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ মো. মহিউদ্দিন, জেলা প্রশাসক সায়লা ফারজানা, অতিরক্তি পুলিশ সুপার মো. মোস্তাফিজুর রহমানের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করেন।
পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি প্রি-পেইড মিটার স্থাপন বিরোধী আন্দোলনের আহ্বায়ক কাউন্সিলর ফরহাদ হোসেন আবির স্বাক্ষরিত স্মারকলিপিতে বলা হয়েছে, মুন্সীগঞ্জের কিছু এলাকায় প্রি-পেইড মিটার স্থাপন করা হয়েছে। সেসব গ্রাহক চরম ভোগান্তির মধ্যে আছে। প্রি-পেইড মিটার স্থাপনের কারণে বিগত সময়ে চেয়ে দ্বিগুণ থেকে তিনগুণ পর্যন্ত অতিরিক্ত বিদ্যুৎ বিল গুনতে হচ্ছে গ্রাহকদের। বিদ্যুৎ কার্ড রিচার্জের সঙ্গে সঙ্গে সার্ভিস চার্জ, ভ্যাট, মিটার মাশুল বাবদ বিপুল পরিমাণ টাকা গ্রাহকদের কাছ থেকে কেটে নেয়া হচ্ছে। রিচার্জকৃত কার্ডের টাকা শেষ হয়ে গেলে আকস্মিকভাবে রাত-বিরাতে বিদ্যুৎ সংযোগ অটোমেটিক বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ার কারণে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে বিদ্যুৎ গ্রাহকরা। রিচার্জ কার্ড সংগ্রহের জন্য স্থান পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কার্যালয় দূরে হওয়াতে মানুষের অতিরিক্ত অর্থ ও সময়ও ব্যয় হচ্ছে। এছাড়াও কার্ড সংগ্রহের জন্য দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হচ্ছে গ্রাহকদের। এ অবস্থায় সেবার নামে প্রি-পেইড মিটার গ্রাহকদের উপর চাপিয়ে দিয়ে গ্রাহকদের চরম ভোগান্তিতে ফেলেছে মুন্সীগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি।


অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর