× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২১ অক্টোবর ২০১৯, সোমবার

বিতর্কের মুখে সিলেটের শাহপরান থানার ওসি আক্তার বদলি

দেশ বিদেশ

ওয়েছ খছরু, সিলেট থেকে | ১১ জুন ২০১৯, মঙ্গলবার, ৯:৩৪

এলাকাবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে বদলি করা হলো সিলেটের শাহপরান থানার আলোচিত ওসি আক্তার হোসেনকে। গতকাল এক আদেশে তাকে শাহপরান থানা থেকে বদলি করে পার্শ্ববর্তী মোগলাবাজার থানায় যোগদানের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তার স্থলে এসে দায়িত্ব নিচ্ছেন মোগলাবাজার থানার ওসি আব্দুল কাইয়ূম চৌধুরী। গতকাল সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের এডিসি (মিডিয়া) জেদান আল মুছা মানবজমিনকে জানিয়েছেন- অভ্যন্তরীণ বদলি হিসেবে শাহপরান ও মোগলাবাজার থানার দুই ওসিকে বদলি করা হয়েছে। গতকাল এ বদলির আদেশ দেয়া হয়। খুব শিগগিরই কর্মস্থলে এ রদবদল হবে বলে জানান তিনি। মোগলাবাজার থানার ওসি আব্দুল কাইয়ূমও বদলির আদেশ পেয়েছেন বলে জানান। সুবিধা মতো সময়ে তিনি এসে যোগ দেবেন বলে জানান।
ওসি আক্তার হোসেন সিলেটের শাহপরান থানায় তিন বছরের অধিক সময় দায়িত্ব পালন করছেন। নানা সময় নানা ঘটনায় তিনি বিতর্কিত হন। সর্বশেষ তার বিরুদ্ধে ক্ষুব্ধ হন খাদিমপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতারা। এর কারণ থানায় এজাহার নিয়ে গিয়ে জমি সংক্রান্ত বিরোধে নারী নির্যাতন মামলায় গ্রেপ্তার হন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজমল আলী নেপুর মিয়া। তাকে গ্রেপ্তারের পরপরই এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা তার বিরুদ্ধে বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন। পাশাপাশি স্থানীয় লোকজনও বিক্ষুব্ধ হন। তারা নেপুর মিয়ার বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রতিবাদে আন্দোলনে নামে। আওয়ামী লীগ নেতা নেপুর মিয়াকে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে সমাবেশ করে তারা ওসির অপসারণ দাবিতে এক সপ্তাহের আলটিমেটাম দেন। আলটিমেটামের পর ঘুম ভাঙে সিলেট পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার। তাদের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে পরে আন্দোলনকারী আওয়ামী লীগ নেতারা ও সাধারণ মানুষ শান্ত হয়। অবশেষে গতকাল ওসি আক্তার হোসেনকে বদলি করা হয়। খাদিমপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম বিলাল মানবজমিনকে জানিয়েছেন- দুর্নীতিবাজ ওসি আক্তার হোসেন বদলি হওয়ায় সাধারণ মানুষ খুশি হয়েছেন। এজন্য তিনি সিলেটের পুলিশ কমিশনার গোলাম কিবরিয়াসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন- দীর্ঘ দিন একই থানায় থাকার সুবাদে ওসি আক্তার দুর্নীতিপরায়ণ হয়ে উঠেছিলেন। তার বদলির মধ্য দিয়ে এলাকায় শান্তি শৃঙ্খলা ফিরে আসবে বলে জানান তিনি। স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতারা জানিয়েছেন- খাদিমপাড়া ইউনিয়নে সামাজিক কাঠামো খুবই শক্তিশালী। এখানে সব মতের মানুষ শান্তিপূর্ণভাবে সহাবস্থান করেন। কিন্তু ওসি আক্তার হোসেন প্রভাবশালীদের পক্ষ নিয়ে দমন পীড়ন শুরু করেন। তার কারণে নানা সময় আতঙ্কের জনপদে পরিণত হয় নগরীর টিলাগড়। বর্তমানে মেজরটিলা ইসলামপুর বাজারেও অস্থিরতা বিরাজ করছে। এই বাজারে ঈদের আগে স্থানীয়দের হামলায় আহত হয়েছিলেন মা খাদিজা জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সদস্য জসিম উদ্দিন। এ ঘটনায় জসিম উদ্দিন আমির আলী, হারুন মিয়া সহ বেশ কয়েকজনকে আসামি করে থানায় মামলা করেছেন। এ ঘটনায়ও ওসি আক্তারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেন এলাকার মানুষ। তাকে ৪৮ ঘণ্টার আলটিমেটাম দেয়া হয়। সিলেটের শাহপরান বাইপাস এলাকায় মা খাদিজা জামে মসজিদ নিয়ে পাল্টাপাল্টি মামলা হয়। উভয় পক্ষের মামলা রেকর্ড করে টাকার খেলায় মেতে উঠেন শাহপরান থানার ওসি আক্তার হোসেন। এ ঘটনায় গত ২৫শে মে সিলেটের পুলিশ কমিশনার বরাবর ওসি আক্তার ও আলমের বিরুদ্ধে অভিযোগ দেয়া হয়। পরে পুলিশ সিকিউরিটি সেলে এ ব্যাপারেও মসজিদ কমিটির সহকারী মোতোওয়ালি সাংবাদিক মুজিবুর রহমান ডালিম অভিযোগ করেন। এদিকে- তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ঈদ ছুটির সময় স্থানীয় বিআইডিসিতে খুনের ঘটনা ঘটে। এ খুনের ঘটনায় শাহপরান এলাকায় আতঙ্ক দেখা দেয়। ঈদের পর সুরমা গেট এলাকায় যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করা হয়েছে। স্থানীয় চেয়ারম্যান গ্রুপের কর্মীরা নিজেদের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কারণে যুবলীগ কর্মী তোফায়েলকে আহত করে। এ ঘটনাও দাসপাড়া এলাকায় টান টান উত্তেজনা বিরাজ করছে।   

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর