× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৪ জুন ২০১৯, সোমবার

নদীতে ব্রিজ নির্মাণের দাবিতে পটুয়াখালীতে বিক্ষোভ

বাংলারজমিন

পটুয়াখালী প্রতিনিধি | ১২ জুন ২০১৯, বুধবার, ৮:৪৭

 লাউকাঠী ও মৌকরন ইউনিয়নসহ দুমকি উপজেলার তিন লক্ষাধিক মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি লাউকাঠী খেয়াঘাট সংলগ্ন নদীতে ব্রিজ নির্মাণের। এ দাবিতে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর বরাবরে স্মারকলিপি পেশ ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে লাউকাঠী খেয়া পারাপারে ভুক্তভোগী জনগণ। গতকাল সকাল ১০টায় শহীদ আলাউদ্দিন শিশু পার্কে জমায়েত শেষে মিছিল শুরু করে তারা। মিছিলটি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে লাউকাঠী নদীতে ব্রিজ নির্মাণের দাবিতে বক্তব্য রাখেন- মুক্তিযোদ্ধা আলতাফ হোসাইন মাস্টার, মো. আতাহার উদ্দিন, সুভাষ চন্দ্র নাগ, সাইদুল ইসলাম, কাজী দেলোয়ার হোসেন দিলিপ প্রমুখ। পরে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা বরাবরে জেলা প্রশাসক মো. মতিউল ইসলাম চৌধুরীর কাছে একটি স্মারকলিপি জমা দেন তারা।
বক্তারা বলেন, লাউকাঠী ও মৌকরন ইউনিয়নসহ দুমকি উপজেলার তিন লক্ষাধিক ভুক্তভোগী মানুষ লাউকাঠী নদীতে একমাত্র নৌকা পারাপারের মাধ্যমে পটুয়াখালী জেলা শহরে ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করে আসছে। পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়সহ শতাধিক স্কুল, কলেজ, মাদরাসার হাজার হাজার ছাত্রছাত্রী, শিক্ষক, চাকরিজীবীসহ শ্রমজীবী মানুষ ঝুঁকি নিয়ে নিয়মিত যাতায়াত করে।
তিন লক্ষাধিক মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি লাউকাঠী খেয়াঘাট সংলগ্ন ব্রিজ নির্মাণের। এখানে ব্রিজ নির্মিত হলে পটুয়াখালী জেলা শহরের সঙ্গে পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের যাতায়াতের দূরত্ব প্রায় ১০ কি. মি. হ্রাস পাবে এবং সময়ও কম লাগবে। এ খেয়া পারাপারে ইতিপূর্বে দুই অধ্যাপিকা, একজন অধ্যাপক এবং একজন স্কুলছাত্রীসহ অসংখ্য শিক্ষার্থী ও নারী পুরুষ দুর্ঘটনায় আহত হন। এ দুরবস্থার অবসানে ব্রিজ নির্মাণে প্রধানমন্ত্রীর জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করেন বক্তারা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর