× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২০ জুন ২০১৯, বৃহস্পতিবার

সেই টন্টনে ফিরছেন আমির

ক্রিকেট বিশ্বকাপ-২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক | ১২ জুন ২০১৯, বুধবার, ১০:০১

৫ বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ২০১৬ সালে ফার্স্ট-ক্লাস ম্যাচ দিয়ে মোহাম্মদ আমির মাঠে ফিরেছিলেন। ভেন্যু ছিল টন্টন। ফেরার ম্যাচে সমারসেটের বিপক্ষে ৩৬ রানে ৩ উইকেট নিয়েছিলেন পাকিস্তানের বাঁহাতি পেসার। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে আজ স্মৃতি বিজড়িত কাউন্টি গ্রাউন্ডে ফিরছেন ২৭ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার।
ক্যারিয়ারের শুরুতে আলোচনার তুঙ্গে ছিলেন আমির। ২০০৯ সালে পাকিস্তানকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জেতাতে রাখেন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। টেস্ট, ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টি তিন ফরম্যাটেই তখন সময়ের সেরা বোলার আমির। লিডসে ২০১০ সালে টেস্ট ম্যাচে অস্ট্রেলিয়াকে ৮৮ রানে অলআউট করে দিয়েছিল পাকিস্তান।
ওই ম্যাচে ২০ রানে ৩ উইকেট নিয়েছিলেন আমির। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে এক ওভারে ৪ উইকেট নেয়ার কৃতিত্বও দেখিয়েছিলেন। ওই বছরই ইংল্যান্ডের বিপক্ষে লর্ডস টেস্টে স্পট ফিক্সিংয়ের দায়ে আমিরের ক্যারিয়ারে লেগে যায় কলঙ্ক। সতীর্থ সালমান বাট, মোহাম্মদ আসিফের সঙ্গে ৫ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হন। ২০১৫ সালে নিষেধাজ্ঞা শেষ হলেও বিশ্বকাপ খেলতে পারেননি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরেন ২০১৬ সালের  জানুয়ারিতে অকল্যান্ডে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি ম্যাচ দিয়ে। ওই মাসেই ওয়ানডে খেলেন ওয়েলিংটনে। আর জুলাইয়ে অভিশপ্ত লর্ডসে খেলেন টেস্ট।
নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরার পর পুরনো ছন্দে আর দেখা যায়নি আমিরকে। তবে তিনি যে বড় মাপের বোলার তা মাঝে মাঝেই দেখা যায়। গত চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে ভারতের টপঅর্ডারে ধস নামিয়েছিলেন আমির। এবার বিশ্বকাপ অভিষেকে নিজের প্রথম ম্যাচেই নেন ৩ উইকেট। যদিও ম্যাচটিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে ৭ উইকেটে হেরে যায় তার দল। তবে পরের ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ সময়ে ২ উইকেট নিয়ে পাকিস্তানকে ১৪ রানে জিতিয়েছেন আমির। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৮ ওয়ানডেতে ১২ উইকেট নেয়া আমিরের দিকে আজও তাকিয়ে থাকবে পাকিস্তান।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর