× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৬ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার

বাংলাদেশ ভ্রমণে সতর্কতা পর্যালোচনা বৃটেনের

অনলাইন

কূটনৈতিক রিপোর্টার | ১৪ জুন ২০১৯, শুক্রবার, ১০:২৪

বাংলাদেশ ভ্রমণে বৃটেনের নাগরিকদের জন্য জারি করা দেশটির পররাষ্ট্র দপ্তরের নিয়মিত সতর্ক বার্তা রিভিউ বা পর্যালোচনা করা হয়েছে। শুক্রবার বৃটিশ ফরেন অ্যান্ড কমনওয়েলথ অফিসের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে পর্যালোচনার কথা জানানো হয়। এতে স্পষ্ট করে সন্ত্রাসী হামলার হুমকির কোন তথ্য শেয়ার করা না হলেও বলা হয়Ñ এ সংক্রান্ত বিদ্যমান পরামর্শ বৃটেন পূর্ণমাত্রায় পর্যালোচনা করেছে। যা টেরোরিজম এবং সামারি সেশনে আপডেট করা হয়েছে। ওই সেকশনে সাম্প্রতিক সময়ে ঢাকায় যেসব আক্রমণ বা আক্রমণ চেষ্টা প্রতিহত করার ঘটনা ঘটেছে তা তুলে ধরে বৃটিশ নাগরিকদের পাবলিক গেদারিং বা জনসামগম স্থান বিশেষত: ধর্মীয় এবং রাজনৈতিক সভাসমাবেশ-র‌্যালী এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, গত এপ্রিলের শেষের দিকে জঙ্গী হামলার হুমকির আশঙ্কায় বাংলাদেশ ভ্রমণে বৃটিশ নাগরিকদের জন্য সতর্কতা জারি করেছিল দেশটির পররাষ্ট্র দপ্তর। সেই বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছিল, সম্প্রতি বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর থেকে বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) হামলায় স্বার্থ থাকার বিষয়ে ইঙ্গিত পাওয়া গেছে। বৃটেন নির্দিষ্ট করে কোনো হুমকির ব্যাপারে অবগত নয়।
তারপরও নাগরিকদের জনসমাগমের স্থানে যাওয়া নিয়ে সতর্ক থাকতে অনুরোধ করা হচ্ছে। পার্বত্য চট্টগ্রামে আবশ্যকীয় ভ্রমণ ছাড়া বাংলাদেশের অন্য সবখানে ভ্রমণের বিষয়ে বৃটিশ পররাষ্ট্র ও কমনওয়েলথ অফিস (এফসিও) সতর্ক থাকার পরামর্শ দিচ্ছে। এপ্রিলের বিবৃতিতে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়, বাংলাদেশে রাজনৈতিক সমাবেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি বা বিভিন্ন দলের মধ্যে ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে দলগুলোর সংঘর্ষের আশঙ্কা রয়েছে। বড় জমায়েত ও রাজনৈতিক সমাবেশ এড়িয়ে চলার পরামর্শও সেই সময় দেয়া হয়েছিল। সেই সতর্ক বার্তা এবং বৃটিশ নাগরিকদের জন্য অত্যাবশ্যকীয় পরামর্শগুলো দেশটির ওয়েবসাইটের টেরোরিজম সেকশনে এখনও বহাল রাখা হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর