× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২১ জুলাই ২০১৯, রবিবার

বরিস জনসনকে থামাতে পারবেন কেউ!

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৫ জুন ২০১৯, শনিবার, ১:০৩

ক্ষমতাসীন কনজার্ভেটিভ পার্টির নেতৃত্ব ও বৃটেনে প্রধানমন্ত্রিত্বের লড়াইয়ে সব প্রার্থীকে ছাড়িয়ে অনেক এগিয়ে রয়েছেন সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন। বৃহস্পতিবার পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে দলীয় এমপিরা প্রথম দফায় ১০ জন প্রার্থীর ওপর ভোট দেন। প্রথম দফার লড়াই থেকে ছিটকে পড়েছেন তিনজন। তবে শীর্ষস্থানে রয়েছেন ৫ জন। তারা হলেন বরিস জনসন (১১৪ ভোট), পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেরেমি হান্ট (৪৩ ভোট), পরিবেশমন্ত্রী মাইকেল গভ (৩৭ ভোট),  এমপি ডোমিনিক রাব (২৭ ভোট) ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাজিদ জাভিদ (২৩ ভোট)। এ ছাড়া ম্যাট হ্যানকক পেয়েছেন ২০ ভোট। রোরি স্টিওয়ার্ট পেয়েছেন ১৯ ভোট। ১১ ভোট পেয়ে আউট হয়ে গেছেন আন্দ্রেয়া লিডসম।
১০ ভোট পেয়ে আউট মার্ক হারপার এবং ৯ ভোট পেয়ে আউট হয়েছেন এস্থার ম্যাকভি। এখন চূড়ান্ত লড়াইয়ে দৃশ্যত রয়েছেন শীর্ষ ৫ জন। তারাই এখন পরবর্তী নেতা হওয়ার দৌড় শুরু করেছেন। সপ্তাহান্তে ছুটির সময়টাকে তারা তাই প্রচারণার কাছে লাগাচ্ছেন। এ জন্য আজ শনিবার ওয়েস্টমিনস্টারে ন্যাশনাল কনজার্ভেটিভ কনভেনশনে কনজার্ভেটিভ দলের তৃণমূল নেতাদের প্রশ্নের মুখোমুখি হবেন শীর্ষ ৬ নেতা। এরই মধ্যে রিপোর্ট প্রকাশ হয়েছে যে, মন্ত্রীপরিষদের কিছু সিনিয়র নেতা এক্ষেত্রে শুধু একটি নামই পছন্দ করছেন। তা হলো বরিস জনসন। তারা চাইছেন চূড়ান্ত ব্যালটে তার নামটাই থাকুক। তাতে আসন্ন সময়টাতে দলের ভিতর ক্ষতিকর প্রতিযোগিতা এড়ানো যাবে।

ডেইলি টেলিগ্রাফের মতে, পরবর্তী দলীয় নেতা নির্বাচনের লড়াইয়ে ‘ব্লু অন ব্লু’ লড়াই এড়াতে চাইছেন মন্ত্রীরা। যদি এমন প্রতিযোগিতা হয় তাহলে প্রার্থীরা একে অন্যের ওপর কাদা ছোড়াছুড়ি করতে পারেন। একই প্রতিক্রিয়া আসতে পারে বিরোধী লেবার দল নেতা জেরেমি করবিনের পক্ষ থেকে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর