× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৬ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার

রোহিঙ্গা সংকট সমাধান না হলে এশীয় অঞ্চল অস্থিতিশীল হতে পারে- প্রেসিডেন্ট

দেশ বিদেশ

কূটনৈতিক রিপোর্টার | ১৬ জুন ২০১৯, রবিবার, ৯:২৪

 রোহিঙ্গা সংকটের শান্তিপূর্ণ সমাধানের ওপর গুরুত্বারোপ করে প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ শনিবার বলেছেন, এ সংকটের সমাধান করা না হলে সেটি সমগ্র এশীয় অঞ্চলকে অস্থিতিশীল করে তুলতে পারে। তিনি বলেন, আমরা এ সঙ্কটের শান্তিপূর্ণ সমাধান চাই এবং এ উদ্দেশে মিয়ানমারের সঙ্গে প্রত্যাবাসন চুক্তি স্বাক্ষর করেছি। এটি যদি সমাধান না করা হয়, তাহলে এ সংকট পুরো এশিয়াকে অস্থিতিশীল করে তুলবে। তাজিকিস্তানের রাজধানী দুশানবেতে কনফারেন্স অন ইন্টারেকশন অ্যান্ড কনফিডেন্স বিল্ডিং মেজারস ইন এশিয়া (সিআইসিএ) এর পঞ্চম সম্মেলনে বক্তব্য প্রদানকালে প্রেসিডেন্ট এসব কথা বলেন।  জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিকরা যাতে নিরাপদে ও মর্যাদার সঙ্গে তাদের দেশে ফিরতে পারে সেজন্য সিআইসিএ অংশীদারদের কাছ থেকে সমর্থন ও সহযোগিতা চেয়েছেন আবদুল হামিদ। তিনি বলেন, বিশ্ব জানে যে বাংলাদেশ মিয়ানমার থেকে জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত প্রায় ১১ লাখ রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দিয়েছে। মিয়ানমারে যে গণহত্যা ও গুরুতর মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটেছে, তাকে ‘জাতিগত নির্মূলের প্রকৃষ্ট উদাহরণ’ ও ‘ভয়াবহ মানবিক বিপর্যয়’ হিসেবে অভিহিত করা হয়েছে। প্রেসিডেন্ট বলেন,  রোহিঙ্গারা জোরপূর্বক তাদের পূর্বপুরুষের ভিটা থেকে বিতাড়িত হয়েছে এবং বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। আমরা দরজা খুলে দিয়েছি এবং এখনও তাদের আশ্রয় দিয়ে যাচ্ছি।
বর্তমানে এশিয়া চরমপন্থি সহিংসতা, আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ, জোরপূর্বক দেশান্তরসহ বিভিন্ন সমস্যার মোকাবিলা করছে উল্লেখ করে প্রেসিডেন্ট এসব সমস্যা সমাধানের জন্য সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণের তাগিদ দেন।


অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর