× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২১ জুলাই ২০১৯, রবিবার

‘উল্টাপাল্টা কথায় মেসিও কষ্ট পান’

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৬ জুন ২০১৯, রবিবার, ৯:৪১

কোপা আমেরিকায় একে অপরের বড় প্রতিপক্ষ। মেসি-সুয়ারেজকে ঘিরেই আক্রমণের পরিকল্পনা সাজান আর্জেন্টিনা ও উরুগুয়ের কোচ। তবে ভিন্ন প্রসঙ্গে ফুটবলের বড় মঞ্চে প্রতিদ্বন্দ্বী বন্ধু লিওনেল মেসির পাশে দাঁড়ালেন লুইস সুয়ারেজ।  
দলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় হওয়ার সুবিধা কড়ায়-গণ্ডায় বুঝে নেন মেসি। সতীর্থ ও কোচদের ওপর নিজের সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেন। এমন অভিযোগ বহুদিনের। এসব অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে ক্লাব সতীর্থ মেসির পাশে দাঁড়ালেন উরুগুয়ে স্ট্রাইকার লুইস সুয়ারেজ। বার্সেলোনার উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার সুয়ারেজ বলেন, ‘আমি দেখি পত্রপত্রিকায় মেসিকে নিয়ে অনেক কিছুই লেখা হয়।
মেসি এটা চায়, ওটা চায় না। আরও কত কী! কিন্তু আমি নিশ্চয়তা দিয়ে বলতে পারি, সে একটা কথাও বলে না এসব নিয়ে। কোচের কোনো সিদ্ধান্ত নিয়ে বা কোনো খেলোয়াড়কে নিয়ে টুঁ শব্দও করে না।’ সুয়ারেজ বলেন, ‘আমার মনে হয় জাতীয় দলেও ও এভাবেই থাকে। এমনকি ওকে কোন একটা জিনিস বা সিদ্ধান্তের ব্যাপারে জিজ্ঞেস করলে ও বলে, না না, আমি কিছু জানি না। তোমাদের যেটা ভালো মনে হয় তোমরা সেটা কর। সিদ্ধান্ত নেয়ার কাজটা তোমরাই কর।’
এসব উল্টাপাল্টা কথায় মেসি কষ্ট পান বলেও জানিয়েছেন সুয়ারেজ, ‘মিডিয়ার এসব ফালতু কথা নিয়ে যখন আমরা মেসির সঙ্গে আলাপ করি, ও অনেক কষ্ট পায়। কেননা, এগুলোর কোনোটাই সত্য নয়। দিন শেষে মেসিও তো মানুষ। ভক্তরা মেসিকে নিয়ে দোষারোপ করুক, ঠিক আছে। কিন্তু ভক্তরা ছাড়া অন্য কেউ খামোখা মনগড়া দোষারোপ করলে যেকোনো খেলোয়াড়েরই খারাপ লাগবে।’ কিছুদিন আগে ইন্টার মিলানের আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার মাউরো ইকার্দি ও তার স্ত্রী ওয়ান্ডা নারা জানিয়েছিলেন, মেসির পছন্দের পাত্র নন বলে জাতীয় দলে ডাক পাচ্ছেন না ইকার্দি। বিশ্বকাপের সময়েও খবর রটেছিল, কোচ হোর্হে সাম্পাওলির ওপর আর্জেন্টিনার অনেক খেলোয়াড় ক্ষুব্ধ, আর তাদের নেতৃত্বে আছে খোদ মেসি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর