× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২১ জুলাই ২০১৯, রবিবার

মুশফিককে নিয়ে শঙ্কা

প্রথম পাতা

ইশতিয়াক পারভেজ,টনটন থেকে | ১৬ জুন ২০১৯, রবিবার, ১০:০৭

টনটনের সমারসেট কাউন্টি ক্রিকেটের মাঠ বেশ ছোট। তবে ব্রিস্টলের মতো অগোছালো নয়। ছবির মতো সাজানো সবকিছু। সুন্দর এই প্রকৃতির মাঝেই বাংলাদেশ দলের জন্য অপেক্ষা করছে কঠিনতম পরীক্ষা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে জিতলেই দল ফিরবে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে টিকে থাকার লড়াইয়ে। কিন্তু তার আগে চোট আর আঘাতে জর্জড়িত বাংলাদেশ দল নিয়ে চিন্তার শেষ নেই। অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা থেকে শুরু করে সিনিয়র পাঁচ ক্রিকেটারই আছেন চোটের শঙ্কাতে। এরমধ্যে নিজেদের প্রথম তিনম্যাচে ব্যাটে বলে দূর্দান্ত সহঅধিনায়ক সাকিব আল হাসানকে নিয়ে চিন্তা ছিল সবচেয়ে বেশি।
ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সেঞ্চুরি হাঁকানোর দিনই তিনি ব্যাথা পেয়েছিলেন। শঙ্কা ছিল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে  খেলা নিয়েও। তবে সেই ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেসে গেলে লম্বা একটা সময় পেয়েছেন সুস্থ হয়ে উঠার। টনটনে যখন ঐচ্ছিক অনুশীলনে ছিলেন না তখন তাকে নিয়ে আবার নানা শঙ্কা দানা বাঁধতে শুরু করে। শেষ পর্যন্ত গতকাল তিনি ব্যাট হাতে মাঠে নামেন। অনেকটা সময় কাটান অনুশীলনে। তার এই ফেরা দলের জন্য স্বস্তিদায়ক হলেও চিন্তা  থেকেই যাচ্ছে বাকিদের নিয়ে। এর মধ্যে গতকাল অনুশীলনে ফের ব্যাথা পেয়েছেন মুশফিকুর রহীম। এখন দেখার বিষয় সেই রেশ কতটা প্রভাব ফেলে দলের উপর।

১লা মে বাংলাদেশ দল  দেশ ছাড়ে আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে টানা তিন ম্যাচে হারিয়ে প্রথমবারের মতো জিতে নেয় কোন টুর্নামেন্টের শিরোপা। তাতেই টাইগারদের উপর বিশ্বকাপে প্রত্যাশার চাপ বেড়ে যায় হাজার গুণ। কিন্তু এই জয়ের উল্লাসের মাঝেও একে একে চোটের সংবাদ দলকে বিচলিত করে তোলে। অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্জতাকে নিয়ে আসে শঙ্কার সংবাদ। তবে ইনজুরিকে জীবনের অংশ বানিয়ে ফেলা টাইগার অধিনায়ক ভেঙে পড়েননি। খেলে যাচ্ছেন ব্যাথা নিয়েই। রুবেল হোসেন ও সাইফুদ্দিন দেশ থেকেই বয়ে এনেছেন ইনজুরি। কিন্তু আয়ারল্যান্ড থেকে বিশ্বকাপের প্রথম তিন ম্যাচে দারুণ ফর্মে আছেন এই অলরাউন্ডার। মুশফিকও এসেছিলেন ছোটখাটো চোট নিয়ে। বিশ্বকাপেও তাকে নিয়ে শঙ্কা ছিল। তবে শেষ পর্যন্ত খেলছেন দারুণ। গতকাল টনটনে এসে সত্যি চিন্তা করার মতই আঘাত পেয়েছেন মুশফিক। সবশঙ্কা কাটিয়ে যখন সাকিব নেটে ব্যাট হাতে মাঠে নেমেছিলেন তখন বাংলাদেশ দলে হয়তো বইছিল স্বস্তির জোয়ার। কিন্তু ঠিক তখনই ঘটে দুর্ঘটনা। মোস্তাফিজুর রহমানের দারুণ গতিতে করা একটি বল তার ডান হাতে এসে আঘাত হানে। সঙ্গে সঙ্গে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় ড্রেসিং রুমে।

কেমন আছেন বাংলাদেশ দলের নির্ভরযোগ্য এই উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান? সংবাদ সম্মেলনে এসে কোনো সঠিক উত্তর দিতে পারেননি সতীর্থ তামিম ইকবাল। তিনি বলেন, ‘আসলে এখনো বলা যাচ্ছে না। সময় লাগবে জানতে।’ অন্যদিকে তামিম ইকবালও ইনজুরি নিয়ে এসেছেন বিশ্বকাপে খেলতে। হাতে ব্যথা ছিল তার। আয়ারল্যান্ড সিরিজ শেষ হওয়ার পরই তাকে নিয়ে গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে হয়তো বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচেই তার খেলা হবেনা। তবে শেষে তিনি মাঠে নামেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে ব্যর্থ। এখনো কি তার হাতে ব্যাথা আছে কিনা সেটি অবশ্য জানা যায়নি। থাকলেও হয়তো সেটি নিয়েই খেলে যাচ্ছেন।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচের দিন ব্যক্তিগত পাঁচ রানের সময়ই ব্যাথা পেয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। কিন্তু সেখানে তিনি ভেঙে পড়েননি। খেলে গেছেন, আর থেমেছেন বিশ্বকাপে নিজের প্রথম সেঞ্চুরি তুলেই। যদিও ইংল্যান্ডের ছুড়ে দেয়া ৩৮৬ রানের লক্ষ্য তার সেই সেঞ্চুরিতে পার করা যায়নি। এরপরই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচের আগে তাকে পাঠানো হয়েছিল ইনজুুরির স্থান স্ক্যান করার জন্য।  সেখানে কোন বড় ধরণের সমস্যা ধরা পড়েনি। ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ায় মন খারাপের দিন সাকিবের বড় কোন সমস্যা না হওয়া ছিল দলের জন্য সুসংবাদ।

মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ দেশ ছাড়ার আগে থেকেই ইনজুুরিতে। তিনিও খেলছেন হাতের ব্যাথা নিয়ে। এখন পর্যন্ত বল হাতে নিতে পারেননি এই অলরাউন্ডার। তাকে নিয়ে অধিনায়ক মাশরাফি স্পষ্ট করেই জানিয়ে দিয়েছেন এখনো হাতের ইনজুরির কারণে তিনি শতভাগ ফিট নন। এই নিয়ে খেলে যাচ্ছেন দলের ব্যাটিং ভার সামলাতে।

মাশরাফি, সাকিব, মুশফিক, তামিম ও মাহমুদুল্লাহ দলের সেরা এই পাঁচ ক্রিকেটারই দাঁত কামড়ে ছোট বড় ইনজুরি নিয়েই খেলছেন বিশ্বকাপ। দলের নতুন প্রজন্মের ক্রিকেটারদের মধ্যে মোস্তাফিজ, সাইফুদ্দিন ও রুবেল হোসেনও ইনজুরি মুক্ত নন। সব মিলিয়ে চোট-আঘাতেই চলছে টাইগারদের বিশ্বকাপ মিশন!

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর