× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২০ জুলাই ২০১৯, শনিবার

এবারও হলো না পাকিস্তানের

ক্রিকেট বিশ্বকাপ-২০১৯

বিশ্বকাপ ডেস্ক | ১৬ জুন ২০১৯, রবিবার, ২:৫৩

হলো না পাকিস্তানের। বিশ্বকাপের মঞ্চে এবারও ভারতবধ হলো না তাদের। ১৯৯২ বিশ্বকাপ থেকে টানা ছয়টি ম্যাচে হেরেই আসছে। সেই হারের বৃত্ত থেকে আর বের হতে পারলেন না সরফরাজরা। বিশ্বকাপে কোহলিদের বিপক্ষে জয়টা যেন অধরাই রয়ে গেল।

রোববার আসরের ২২তম ম্যাচে রোহিত-কোহলিদের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে গড়া ৩৩৬ রানের পাহাড় টপকাতে নামে পাকিস্তান।  কিন্তু এই লক্ষ্যমাত্রা যেন বাবর-ফখরদের কাছে কঠিন হয়ে উঠেছিল। একের পর এক উইকেট বিলিয়ে দিতে হয়েছে পান্ডিয়া-কুলদ্বীপদের হাতে। ৩০ ওভার খেলতেই হারিয়ে বসে ৫টি উইকেট।
ততক্ষণে স্কোর বোর্ডে জমা পড়ে মাত্র ১৩০ রান। তাতেই বিশাল চাপে পড়ে যায় পাক ব্যাটসম্যানরা।  হার্দিক পান্ডিয়া ও কুলদ্বীপদের বোলিং তোপে দিশেহারা শোয়েব মালিক-সরফরাজরা অসহায় আত্মসমর্পণ করতে বাধ্য হন। এর মধ্যে খেলা চালাকালে দ্বিতীয় দফা বৃষ্টিও বাধা হয়ে দাঁড়ায়। অবশ্য কিছুক্ষণের মধ্যে বৃষ্টি থামলেও পাকিস্তানের সামনে টার্গেট গিয়ে দাঁড়ায় ৩০ বলে ১৩৬ রান। যা অসম্ভবই ছিল পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানদের কাছে। ৬ উইকেট হারিয়ে ২১২ রানেই থামতে হয় তাদের। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের কাছে ৮৭ রানে বড় ব্যবধানে হার মানে সরফরাজের পাকিস্তান।

এর আগে রোববার ম্যানচেস্টারে শুরু হওয়া ম্যাচে টজ জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নিয়ে কোহলিদের ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানায় পাকিস্তান।

ব্যাট করতে নেমে পাকিস্তানি বোলারদের বিরুদ্ধে শান্ত মেজাজে দেখালেও সেটা বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি রোহিত-রাহুলদের। ভারতীয় ব্যাটিং অর্ডার যে কতটা শক্তিশালী সেটা আবারো প্রমাণ করলেন দুজন।  এক জুটিতেই আসে ১৩৬ রান। তবে অর্ধশত রান করে রাহুল ফেরত গেলেও দমে যাননি রোহিত শর্মা। কাপ্তান বিরাট কোহলিকে সঙ্গে পেয়ে আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠেন। দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি উপহার দেন রোহিত। এ নিয়ে ক্যারিয়ারে তার সেঞ্চুরির সংখ্যা গিয়ে দাঁড়ায় ২৪-এ। ১১৩ বলে ১৪০ রান করা রোহিতকে ফেরান হাসান আলী। তার এই ঝড়ো ইনিংসে ছিলো ১৪টি চার ও ৩টি ছয়ের মার। রোহিতের পর ব্যাটিং অর্ডারের হাল ধরেন  কাপ্তান বিরাট কোহলি। ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ব্যক্তিগত ১১হাজার রানের রেকর্ড গড়ার পাশাপাশি তিনি দলের জন্যও খেলেন এক ঝলমলে ইনিংস। কোহলির ব্যাট থেকে আসে ৭৭ রান।

বৃষ্টির কারণে সাময়িক বৃষ্টি বাধা হয়ে দাঁড়ালেও ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা পুরো ৫০ ওভার খেলার সুযোগ পান। তবে শুরুটা দারুণ হওয়ার পরও সে অনুযায়ী বড় সংগ্রহ স্কোর বোর্ডে জমা করতে পারেননি। ধোনি, পান্ডিয়া, পরবর্তীতে এসে  কোহলিকে সঙ্গ দিলেও শেষ মুহূর্তে ঝড়ো ব্যাট করার সুযোগ পাননি। পাকিস্তানি বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ভারতের সংগ্রহ ৩৩৬ রানেই থেমে যায়। অন্যদিকে পাকিস্তানের বোলারদের মধ্যে বল হাতে আজও উজ্জ্বল ছিলেন মোহাম্মদ আমির। ভারতের বিপক্ষে তিনটি উইকেট তোলেন তিনি।

বিশ্বকাপে ভারত
বিশ্বকাপে দারুন ফর্মে রয়েছে ভারত। বিশ্বকাপে খেলা দুই ম্যাচের দু’টিতেই জিতেছে ভারত, তাদের একটি ম্যাচ বৃষ্টির কারণে পরিত্যক্ত হয়। প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৬ উইকেটে হারায় ভারত। দ্বিতীয় ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে জয় পায় ৩৬ রানে। আর তাদের তৃতীয় ম্যাচে বৃষ্টির বাধায় করে পয়েন্ট ভাগাভাগি।

বিশ্বকাপে পাকিস্তান
পাকিস্তান নিজেদের প্রথম ম্যাচে উইন্ডিজদের কাছে ৭ উইকেটে হারে। পরের ম্যাচে স্বাগতিক ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জয় পায় ১৪ রানে। তৃতীয় ম্যাচে বৃষ্টির হানায় শ্রীলঙ্কার সঙ্গে করে নেয় পয়েন্ট ভাগাভাগি। আর চতুর্থ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাকিস্তান হারের স্বাধ পায় ৪১ রানে।

মুখোমুখি
দু’দল বিশ্বকাপে মুখোমুখি হয় ৬ বার। প্রত্যেক ম্যাচেই জয় পায় ভারত। আর পরস্পর ১৩১ বারের দেখায় ৫৪ ম্যাচ জয় পায় ভারত। আর পাকিস্তান ৭৩ ম্যাচে। পরিত্যক্ত হয় ৪টি ম্যাচ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর