× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৬ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার

ওয়াশিং মেশিন কিনে নতুন গাড়ি পাওয়ার সুযোগ

অনলাইন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | ১৬ জুন ২০১৯, রবিবার, ৮:০৫

ওয়াশিং মেশিনে নতুন গাড়ি পাওয়ার সুযোগ দিচ্ছে ওয়ালটন। প্রতিষ্ঠানটির ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-৪ এর আওতায় ওয়ালটনের যে কোনো মডেলের ওয়াশিং মেশিন কিনে রেজিস্ট্রেশন করলে পেতে পারেন নতুন গাড়ি। রয়েছে ফ্রিজ, টিভি, এসিসহ অসংখ্য পণ্য ফ্রি পাওয়ার সুযোগ। এছাড়াও আছে লাখ টাকা পর্যন্ত নিশ্চিত ক্যাশ ভাউচার এবং ফ্রি ইন্সটলেশন সুবিধা।

অনলাইনে দ্রুত ও সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা প্রদানের লক্ষ্যে সারা দেশে এই ক্যাম্পেইন চালাচ্ছে বাংলাদেশি মাল্টিন্যাশনাল ব্র্যান্ড ওয়ালটন। ক্যাম্পেইনে ক্রেতাদের কাছ থেকে ব্যাপক সাড়া মিলছে। ক্যাম্পেইন ঘিরে সারা দেশেই বিরাজ করছে উৎসবমুখর পরিবেশ। ব্যাপক ক্রেতাচাহিদার প্রেক্ষিতেই ফ্রিজ, এয়ার কন্ডিশনার এবং টেলিভিশনের পর এবার ওয়াশিং মেশিনে নতুন গাড়ি পাওয়ার সুযোগ যোগ করলো ওয়ালটন।

ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ জানায়, দেশের যেকোনো ওয়ালটন প্লাজা বা পরিবেশক শোরুম কিংবা অনলাইনের ই-প্লাজা থেকে ওয়াশিং মেশিন কিনে মোবাইল নম্বর দিয়ে পণ্যটি রেজিস্ট্রেশন করবেন ক্রেতা। এরপর ফিরতি এসএমএস-এ ক্রেতাকে নতুন গাড়ি, ফ্রি পণ্য অথবা ক্যাশ ভাউচারের অংক জানিয়ে দেয়া হবে।
এছাড়াও, জিপি স্টার গ্রাহকদের জন্য ১০ শতাংশ ছাড়ে ওয়াশিং মেশিন কেনার সুযোগ রয়েছে।

ওয়ালটন হোম অ্যাপ্লায়েন্স-এর প্রোডাক্ট ম্যানেজার মো. জানেসার আলী জানান, ওয়ালটন ১২ মডেলের সেমি অটোমেটিক এবং অটোমেটিক ওয়াশিং মেশিন বাজারজাত করছে। ৬ কেজি থেকে ৯ কেজি পর্যন্ত ধারণক্ষমতার ৫ মডেলের সেমি অটোমেটিক ওয়াশিং মেশিনের দাম পড়বে ১০ হাজার থেকে সর্বোচ্চ ১৫ হাজার টাকা।

ওয়ালটনের অটোমেটিক ওয়াশিং মেশিনগুলোর মধ্যে ৬ কেজি থেকে সাড়ে ১২ কেজি পর্যন্ত ধারণক্ষমতার ৪টি টপ লোডিং মডেলের দাম ২২ হাজার থেকে ২৯,৫০০র টাকা। আর ৬ থেকে ৮ কেজি ধারণক্ষমতার ৩ মডেলের ফ্রন্ট লোডিং অটোমেটিক ওয়াশিং মেশিন পাওয়া যাচ্ছে ২৯,৫০০ থেকে ৪৫ হাজার টাকায়।

ওয়ালটন হোম অ্যাপ্লায়েন্স-এর বিপণন ও বিক্রয় বিভাগের প্রধান মাশরুর হাসান জানান, বাজারের অন্যান্য ওয়াশিং মেশিনের প্রচলিত সব সুবিধার বাইরেও ওয়ালটনের অটোমেটিক ওয়াশিং মেশিনের বেশকিছু বিশেষ সুবিধা আছে। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো এর অটো বালান্স ফাংশন। যা অ্যালার্মের মাধ্যমে ভারসাম্য ঠিক করার জন্য স্বয়ংক্রিয়ভাবে ব্যবহারকারীকে নির্দেশনা দেয়।

ওয়ালটনের অটোমেটিক ওয়াশিং মেশিনে আছে ফাজি লজিক সুবিধা। অর্থাৎ কাপড়ের পরিমাণ অনুযায়ী কতটুকু পানি লাগবে, কত সময় ধরে চলতে হবে ইত্যাদি বিষয়গুলো নিজেই সেট করে নেয়। এতে আছে কুইক ওয়াশ ফিচার অপশন। ব্যবহারকারীর সময় স্বল্পতা থাকলে তিনি কুইক ওয়াশ ফিচার ব্যবহার করতে পারেন। এর মাধ্যমে স্বাভাবিকের চেয়ে অর্ধেক সময়ে কাপড় পরিষ্কার হয়।  

ওয়ালটনের সব মডেলের ওয়াশিং মেশিনের আছে আলাদা লিন্ট ফিল্টার অপশন। কাপড় থেকে সেসব তুলা বা সুতা ওঠে, সেটা লিন্ট ফিল্টার নামের একটি আলাদা বক্সে এসে জমা হয়। এর ফলে অতিরিক্ত সুতা পানি বের হওয়ার পাইপে আটকে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে না। লিন্ট ফিল্টারটি কিছুদিন পর পর পরিষ্কার করলেই হয়।
ওয়ালটনের সব ধরনের ওয়াশিং মেশিনের ঢাকনায় টেম্পারড গ্লাস ব্যবহার করা হয়েছে। ফলে এই ঢাকনা অনেক বেশি টেকসই। রয়েছে ড্যাম্পিং ফাংশন। ফলে ওপর থেকে ঢাকনা ছেড়ে দিলে মেশিনের গায়ে আঘাত না করে ধীরে ধীরে নেমে আসে। যা ঢাকনা ও মেশিনের বডিকে দেয় দীর্ঘস্থায়িত্বের নিশ্চয়তা। রয়েছে এলইডি ডিসপ্লে।

ওয়ালটনের ফ্রন্ট লোডিং মডেলগুলোয় বেশ কিছু অতিরিক্ত ফিচার যুক্ত করা হয়েছে। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হিটিং অপশন। অর্থাৎ কাপড় ধোয়ার আগে ওয়াশিং মেশিনটি পানি গরম করে নেয়। ফলে কাপড় পরিষ্কার হয় আরো নিখুঁত। ৮ কেজি ধারণক্ষমতার মেশিনটিতে ব্যবহৃত হয়েছে এলইডি ডিসপ্লের টাচ প্যানেল। যার ফলে ওয়াশিং মেশিন ব্যবহার করা এখন আরো সহজ।

উল্লেখ্য, মাত্র ৯৯৯ টাকা ডাউন পেমেন্ট দিয়ে ৩ মাসের কিস্তি সুবিধায়ও ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিন কেনা যাচ্ছে।
ওয়াশিং মেশিনের বিক্রয়োত্তর সেবায় মটরের জন্য ৫ বছরের ওয়ারেন্টি দিচ্ছে ওয়ালটন। অন্যান্য অংশের জন্য থাকছে ৩ বছরের ওয়ারেন্টি। বিক্রয়োত্তর সেবায় ৫ বছর পর্যন্ত হোম সার্ভিস দেয়া হয়, যার প্রথম বছরটি গ্রাহক সম্পূর্ণ বিনামূল্যে সেবা পান।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর