× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৬ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার

এলোপ্যাথিক চিকিৎসার পাশাপাশি আয়ুর্বেদিক চিকিৎসায়ও জোর দেয়া হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১৭ জুন ২০১৯, সোমবার, ৯:৪৫

সরকার বর্তমানে এলোপ্যাথিক চিকিৎসার পাশাপাশি আয়ুর্বেদিক ও ভেষজ চিকিৎসায়ও গুরুত্ব প্রদান করছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক। গতকাল রাজধানীর ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় উদ্যোগে আয়োজিত ‘বিমসটেক নেটওয়ার্ক অব ন্যাশনাল সেন্টারস অন কন্ডিশনাল ইন ট্রেডিশনাল মেডিসিন (বিএনএনসিসিটিএম) মিটিং’ এ প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল কলেজসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যকেন্দ্র সমূহে এলোপ্যাথিক চিকিৎসার পাশাপাশি আয়ুর্বেদিক চিকিৎসা শিক্ষা ব্যবস্থাও চালু করা হবে। প্রতিবেশি দেশ ভারত আয়ুর্বেদিক চিকিৎসায় অনেক দূর এগিয়ে গেছে। ভারতে আয়ুর্বেদ চিকিৎসার জন্য আলাদা মন্ত্রণালয়ও প্রতিষ্ঠা করেছে। বিমসটেকভুক্ত অন্যান্য দেশও ভেষজ চিকিৎসায় তাদের দেশে পদক্ষেপ নিচ্ছে। আমাদের দেশেও এই আয়ুর্বেদ চিকিৎসায় উদ্যোগ না নিলে আমরা অন্যান্য দেশের চিকিৎসাসেবার তুলনায় পিছিয়ে যাবো। সুতরাং এ ব্যাপারে আমাদেরকেও উদ্যোগী হতে হবে এবং ভেষজ চিকিৎসার সুফল তুলে ধরে জনগণকে সচেতন করতে হবে।
স্বাস্থ্যখাতে বাংলাদেশের অভূদপূর্ব সাফল্য অর্জিত হয়েছে উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরো বলেন, আমাদের বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে বাংলাদেশে গত ১০ বছরে স্বাস্থ্যখাতে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ১৪ হাজার কমিউনিটি ক্লিনিক করা হয়েছে। প্রচুর ডাক্তার, নার্স নিয়োগ করা হয়েছে। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগ শাখার সচিব জিএম সালাউদ্দিন, ভুটানের প্রতিনিধি মি. শেরিং ওয়াংচুক, সোনম লুন্ড্রুপ,ভারতের প্রতিনিধি ড. কুন্ডু রামাচন্দ্র রেড্ডি,  ড. হীনা রেহমান।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর