× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২০ জুলাই ২০১৯, শনিবার

‘পাকিস্তানের ম্যাচ পরিকল্পনা ছিল গতানুগতিক’

ক্রিকেট বিশ্বকাপ-২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৮ জুন ২০১৯, মঙ্গলবার, ৯:৫৩

বিশ্বকাপে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের কাছে একরকম উড়ে গেছে পাকিস্তান। রোববার ওল্ড ট্রাফোর্ডে বৃষ্টি আইনে ৮৯ রানে পরাজিত হয় তারা। ভারতের কাছে হারের পর পাকিস্তান দলের মুণ্ডপাত করেছেন দেশটির সাবেক ক্রিকেটাররা। পিছিয়ে নেই প্রতিপক্ষ দলের সাবেকরাও। ভারতের কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান শচীন টেন্ডুলকার মনে করেন, পাকিস্তানের ম্যাচ পরিকল্পনা ছিল গতানুগতিক। বিশ্বকাপের সর্বাধিক রান সংগ্রাহক শচীন বলেন, ‘পাকিস্তানের কোনো ব্যতিক্রমী বা বিকল্প পরিকল্পনা ছিল না। তারা যা পূর্ব পরিকল্পনা করেছিল তাই বাস্তবায়নের চেষ্টা করেছে শুধু।’
ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে টস জিতে ফিল্ডিং নেন পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। অথচ বিশ্বকাপে পাকিস্তানের চেজিং রেকর্ড খুব বাজে।
ভারতের বিপক্ষে তো আরো খারাপ। এরপর পাকিস্তানি বোলারদের অনিয়ন্ত্রিত বোলিং। মোহাম্মদ আমির ছাড়া সবাই রান বিলিয়েছেন দেদারসে। লেগস্পিনার শাদাব খানকে একাদশে নিয়েছিল পাকিস্তান। শাদাব ৯ ওভার বোলিং করে ৬১ রান দিয়ে কোনো উইকেট পাননি। বাঁহাতি স্পিনার ইমাদ ওয়াসিমও ছিলেন উইকেটশূন্য। পাকিস্তানের বোলিং নিয়ে শচীন বলেন, ‘এই কন্ডিশনে লেগস্পিনাররা খুব বেশি গ্রিপ পাবেন না। বিশেষ করে যখন লাইন-লেন্থ ঠিক না থাকে। বড় ম্যাচের পরিকল্পনা এমন হওয়া উচিৎ নয়।’
উইকেটে মুভমেন্ট না থাকা সত্ত্বেও পাকিস্তানি পেসাররা ওভার দ্য উইকেটে বোলিং করেছেন। আর ভারতের ব্যাটসম্যানরা তাদের সহজেই বাউন্ডারি মেরেছে। শচীন বলেন, বল যদি খুব বেশি মুভ না করে তখন ওভার দ্য উইকেটে টানা বল করা উচিৎ নয়। ওয়াহাব (রিয়াজ) পরে রাউন্ড দ্য উইকেটে গিয়ে বল করেছে। কিন্তু ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গেছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর