× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৪ জুলাই ২০১৯, বুধবার

‘বুড়োদের বাদ দিতে হবে’

ক্রিকেট বিশ্বকাপ-২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৯ জুন ২০১৯, বুধবার, ১০:১২

ভারতের কাছে হারের পর গোটা পাকিস্তান জুড়ে সমালোচনার ঝড়। কারও মতে চাপের সামনেই নতি স্বীকার পাকিস্তানের। কেউ মনে করছেন ফিটনেসের ঘাটতির কারণেই দলের এমন হাল। এমনটা মনে করেন ওয়াকার ইউনুসও। পাকিস্তানের সাবেক এই অধিনায়ক বলেন, ‘গত কয়েক বছরে পাকিস্তান আর ভারতের মধ্যে অনেক ফারাক তৈরি হয়েছে। আর সেটাই ম্যানচেস্টারে দেখিয়ে দিয়েছে ভারতীয় দল।’ আইসিসির ধারাভাষ্যকার হিসেবে ওয়াকার নিজেও এখন ইংল্যান্ডেই রয়েছেন। কিছুদিন আগে পাকিস্তান দলের কোচ ছিলেন। যে কারণে দলের খেলোয়াড়দের সম্পর্কে স্বচ্ছ ধারণা রয়েছে তার।
আর তাই বলছেন, ‘গত শতাব্দীর নব্বইয়ের দশকেও আমরা ভালো দল ছিলাম। কিন্তু সেটা পুরোনো, ব্যাপারটা আর নেই। ভারত কার্যত পাকিস্তানকে বড়সড় ধাক্কা দিয়ে গেল।’
ভারতীয় দলের ক্রিকেটাররা চমৎকার পারফর্ম করেছেন। সেই তুলনায় পাকিস্তানের কোনো খেলোয়াড়ের দিক থেকেই পাল্টা লড়াই দেখা যায়নি। ওয়াকারের কথায়, ‘ভারতীয় দলে বেশ কিছু চমৎকার ব্যাটসম্যান রয়েছে। তারা খারাপ বলের জন্য অপেক্ষা করে থাকে। তাদের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের বোলাররা কিছুই করতে পারেনি। লাইন ও লেংথের ক্ষেত্রে একদম ধারাবাহিক ছিল না।’ পাকিস্তান দলে মোহাম্মদ আমির ছাড়া আর কাউকেই সেভাবে জ্বলে উঠতে দেখেননি ওয়াকার। যা অবাক করছে তাকে। সে কথা বলতেও দ্বিধা করেননি, ‘আমির একমাত্র বোলার যে কিছুটা চাপ তৈরি করেছিল। শুধু মাত্র সেই ঠিকঠাক লেংথে বল করতে পেরেছিল। বাকিদের মধ্যে কোনো তাগিদই দেখতে পাইনি।’ ওয়াহাব রিয়াজদের মতো ‘বুড়ো’দের দল থেকে ছেঁটে ফেলার সময় এসেছে বলে মনে করছেন ওয়াকার। ওয়াহাব ভারত ম্যাচে ১০ ওভারে ৭১ রান দিয়েছেন। ওয়াকার বলেছেন, ‘মোহাম্মদ হাসনাইনের মতো তরুণ বোলারকে খেলানো উচিত। এরাই ভবিষ্যৎ। এখন থেকে সামনে না তাকালে কিন্তু ভবিষ্যতে আরও বিপদে পড়তে হবে দলকে।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর