× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২০ জুলাই ২০১৯, শনিবার

ট্রাম্পের ‘অসাধারণ’ চিঠি পেলেন কিম

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২৩ জুন ২০১৯, রবিবার, ১:৪৫

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের কাছ থেকে ব্যক্তিগত চিঠি পেয়েছেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন। চিঠিটির প্রশংসা করে কিম জানিয়ছেন, এটি একটি ‘অসাধারণ’ চিঠি। এছাড়া চিঠির ভেতরের লেখাকে খুবই কৌতুহলোদ্দীপক হিসেবে উল্লেখ করে তিনি জানান, তিনি এ বিষয়ে গুরুত্ব সহকারে চিন্তা করবেন। উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্র পরিচালিতা গণমাধ্যম কেসিএনএ’র বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে বিবিসি।

খবরে বলা হয়, চিঠি পেয়ে ট্রাম্পের সাহসীকতার প্রশংসাও করেছেন কিম। তবে চিঠিতে ট্রাম্প কী লিখেছেন সে বিষয়ে কিছু জানাননি তিনি। এমনকি কার মাধ্যমে বা কখন কিমকে এই চিঠি পাঠিয়েছেন ট্রাম্প সে বিষয়েও কোনো তথ্য প্রকাশ করা হয়নি। এ বিষয়ে জানতে চাইলে কোনো মন্তব্য করেনি হোয়াইট হাউজ। প্রসঙ্গত, চলতি মাসে ট্রাম্পকে একটি চিঠি পাঠিয়েছিলেন কিম।
ট্রাম্প ওই চিঠিটি ‘বিউটিফুল’ বলে বর্ণনা করেন।

উল্লেখ্য, চলতি বছর ভিয়েতনামের রাজধানী হানোইতে কোরীয় উপদ্বীপের পারমানবিক নিরস্ত্রীকরণ ইস্যুতে দ্বিতীয় দফা সম্মেলন করেন ট্রাম্প ও কিম। কিন্তু সম্মেলনে কোনো চুক্তিতে পৌঁছতে পারেননি তারা। ব্যর্থ ওই সম্মেলনের পর দুই দেশের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি ঘটে। তবে সাপ্রতিক এই চিঠি বিনিময় সম্পর্কের উন্নতি হচ্ছে বলে ইঙ্গিত দিচ্ছে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

বিবিসির সিউল প্রতিবেদক ও বিশ্লেষক লরা বিকার বলেন, হানোইতে সম্মেলন ব্যর্থ হওয়ার পর দুই দেশের মধ্যে এটাই প্রথম বড় ধরণের সম্পোর্কন্নয়নের ইঙ্গিত। সম্মেলনে ও এর পরে যুক্তরাষ্ট্র বারবার দাবি করেছে যে, প্রথমে উত্তর কোরিয়াকে তাদের পারমাণবিক কর্মসূচি বাতিল করতে হবে। এরপর তাদের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়া হবে। কিন্তু পিয়ংইয়ং চাইছিল, আংশিক মার্কিন নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হোক। এ নিয়ে দুই পক্ষের অবস্থান ভিন্নতায় চরম অবনতি ঘটে উত্তর কোরিয়া ও যুক্তয়াষ্ট্রের সম্পর্কের।
কিন্তু সাম্প্রতিক মাসগুলোতে কিম সম্পর্কে উষ্ণ মনোভাব প্রকাশ করেছেন ট্রাম্প। চলতি মাসে এক সংবাদ সম্মেলনে কিমের নেতৃত্ব দেয়ার গুণের প্রশংসা করে তিনি বলেন, তার নেতৃত্ব দেয়ার ব্যাপক প্রতিভা রয়েছে।

এছাড়া গত মাসে জাপান সফরের সময় এক বক্তব্যে কিমকে ‘অত্যন্ত বুদ্ধিমান’ একজন ব্যক্তি হিসেবে বর্ণনা করেন তিনি। জানান, উত্তর কোরিয়ার কাছ থেকে বেশকিছু ভালো জিনিস প্রত্যাশা করছেন তিনি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর