× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৯ আগস্ট ২০১৯, সোমবার

হাজীগঞ্জে বখাটেদের ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় শিক্ষার্থী পরিবারকে পিটিয়ে জখম

বাংলারজমিন

শাহরাস্তি (চাঁদপুর) প্রতিনিধি | ২৪ জুন ২০১৯, সোমবার, ৯:১১

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় এক শিক্ষার্থী পরিবারকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছে একদল বখাটে। গতকাল সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে হাজীগঞ্জ পৌর এলাকার ৫নং ওয়ার্ড মাঝি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। ওই পরিবারের আহত মা, মেয়ে ও চাচিরা বর্তমানে হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন। আহতরা হচ্ছেন- পৌর ৫নং ওয়ার্ড এলাকার  খোকনের স্ত্রী শামসুন্নাহার (৩৫), মেয়ে অনু (১৭), আলী আক্কাসের স্ত্রী রাবেয়া বেগম (২৮), মেয়ে রিমু (১৩), হাজী আলী আরশাদের মেয়ে আমেনা খাতুন (২২), জান্নাত (১৫) ও আলী আক্কাসের মেয়ে সুমাইয়া শিমু (২৫)। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ওইদিন মাঝি বাড়ির সৌদি প্রবাসী খোকনের মেয়ে অনু, আলী আক্কাসের মেয়ে রিমু ও হাজী আলী আরশাদের মেয়ে জান্নাত সন্ধ্যায় প্রাইভেট পড়ে বাড়ি ফেরার পথে একই ওয়ার্ডের সেলিম মিয়ার ছেলে তুষার-১ (২০), মৃত হাবিউল্যাহর ছেলে ইব্রাহিম-১ (২০), তুষার-২ (২০), বাবু (২২), রাসেল (১৮), আল আমিন (২০), রাজন (২২), সজিব (২২), মাহিম (১৯), ইব্রাহিম-২ (১৯), আশিক (২০), জিহাদ (১৯) সবার পিতা অজ্ঞাত  তাদের গতিরোধ করে। এ সময় শিক্ষার্থীরা কিছু বুঝে ওঠার আগে ইব্রাহিম-(১) ও তুষার-১ রাস্তা থেকে কাদা মাটি হাতে নিয়ে জান্নাতের শরীরে মেখে দেয়। অন্যরা রেনু ও অনু নামের দুই শিক্ষার্থীর ওড়না টেনে শরীর থেকে ফেলে দেয়। বখাটেরা অশ্লীল ভাষায় তাদের লাঞ্ছিত করে ও ইজ্জত হরণের হুমকি দেয়।
এ সময় তাদের আর্তচিৎকারে স্থানীয় এলাকাবাসী ও পরিবারের সদস্যরা টের পেয়ে ছুটে আসে।
বখাটেরা শিক্ষার্থীদের পরিবারের ওপর চড়াও হয়ে এলোপাতাড়ি কিল-ঘুষি ও দেশীয় অস্ত্র লাঠিসোঁটা দিয়ে শিক্ষার্থী অনু, জান্নাত তার মা ও বোন রিমুকে বেদম পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। পরে স্থানীয়রা আহতদের হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। আহত শামসুন্নাহারের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। সংবাদ পেয়ে হাজীগঞ্জ থানার এসআই ফারুক আহমেদের নেতৃত্বে সঙ্গীয় ফোর্স গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। শিক্ষার্থীরা আরো জানান, ঘর থেকে পথে বের হলেই কতিপয় বখাটে প্রায় ইভটিজিং করতো। আজ এ ঘটনার প্রতিবাদ করায় বখাটের দল তাদের বাড়িতে গিয়ে হামলা চালায়। এদিকে ইভটিজিংয়ের ঘটনায় মাঝি বাড়িতে গাজী নাসিরের নেতৃত্বে একটি শালিস বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওই শালিস বৈঠকে একরকম মিলমিশের একটি প্রক্রিয়া হয়। সন্ধ্যায় বখাটেরা আবার হামলা চালায় বলে স্থানীয় ও ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার দাবি করেন। এরই মধ্যে বিষয়টি ধামাচাপা দিতে স্থানীয় একদল প্রভাবশালী চক্র দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন বলে এলাকায় চাউর রয়েছে। শিক্ষার্থী পরিবার থানায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানা যায়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর