× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৩ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার

গোল উৎসব করে কোয়ার্টার ফাইনালে ব্রাজিল

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ২৪ জুন ২০১৯, সোমবার, ৯:৪৮

নিজেদের মাঠ সাও পাওলোতে পেরুকে উড়িয়ে দিয়ে কোপা আমেরিকার কোয়ার্টার ফাইনালের টিকিট কাটলো ব্রাজিল। রোববার করিন্থিয়ান্স অ্যারিনায় ‘বি’ গ্রুপের ম্যাচে পেরুর বিপক্ষে ৫-০ গোলে জয় তুলে নেয় স্বাগতিক ব্রাজিল। এর আগে বলিভিয়ার সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে সেলেসাওরা। পরে ম্যাচে গোল উৎসবে মাতলো ৮বারের চ্যাম্পিয়নরা। কোপা আমেরিকার প্রথম ম্যাচে বলিভিয়ার বিপক্ষে ৩-০ গোলে জয় পায় সেলেসাওরা। এতে ৭ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার শীর্ষে ব্রাজিল। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ভেনেজুয়েলার সংগ্রহ ৫ পয়েন্ট। পেরুর অবস্থান তৃতীয়, তাদের সংগ্রহ ৪ পয়েন্ট।
তিন ম্যাচে তিন হারে বলিভিয়ার অবস্থান তালিকার সবার নিচে। আগের ম্যাচে গোল বাতিলের ভিলেন লিভারপুল ফরোয়ার্ড রবার্তো ফিরমিনোর ‘নো লুক’ গোল বিশ্বব্যাপী ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে ৩ গোল করেও ভিএআরে তিনটি গোলই বাতিল হয় ব্রাজিলের। তিনবারই গোল বাতিলের কারণ এই লিভারপুল ফরোয়ার্ড। ফিরমিনো ছাড়াও ব্রাজিলের হয়ে গোল করেন কাসিমিরো, এভার্টন, আলভেস এবং উইলিয়ান। ম্যাচের ১২তম মিনিটেই পেরুর জাল কাঁপান রিয়াল মাদ্রিদ তারকা কাসিমিরো। কুটিনহোর কর্নার থেকে হেডে গোল করেন ক্যাশেমিরো। এর ৭ মিনিট পর প্রতিপক্ষ গোলরক্ষকের ভুলের সুযোগ কাজে লাগিয়ে স্কোরলাইন ২-০ করেন রবার্তো ফিরমিনো। বক্সের মধ্যে গালেসের শট ফিরমিনোর গায়ের স্পর্শে গোলপাস্টে লেগে ফিরে আসে। ফিরতি বল নিজের দখলে নিয়ে বিপক্ষ গোলরক্ষককে পরাস্ত করে গোলপোস্টের দিকে না তাকিয়ে পেরুর জালে বল জড়ান লিভারপুল মিডফিল্ডার ফিরমিনো। গনমাধ্যমে ‘নো লুক’ গোল নাম দেয়া হয়েছে ফিরমিনোর এই গোলকে। ম্যাচ শেষে ‘নো লুক’ গোল নিয়ে ফিরমিনো বলেন, ‘আমার মনে আছে গোলপোস্টের দিকে না তাকিয়ে প্রথম গোলটা করেছিলাম হফেনহেইমে খেলার সময় ওয়ের্ডার ব্রেমেনের বিপক্ষে। আজকের (রোববার) গোলটা অনেকটা সেই গোলের মতোই।’
ম্যাচের ৩২তম মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে দূরপাল্লার শটে দলের তৃতীয় গোলটি এনে দেন এভার্টন সোয়ারেজ। ম্যাচের ৫৩ মিনিটে গোল সংখ্যা এক ‘হালি’ পূর্ণ করেন ব্রাজিলিয়ান অধিনায়ক দানি আলভেস। ফিরমিনোর সঙ্গে ওয়ান টু ওয়ান পাসে গোল কুরায় ৩৬ বছর বয়সী এই ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার। ম্যাচের শেষ মিনিটে দুর্দান্ত শটে ৫ গোল পূর্ণ করেন উইলিয়ান। শরীর শূন্যে ছুঁড়ে দিয়েও চেলসি মিডফিল্ডারের দারুণ শটটি নাগাল পাননি পেরু গোলরক্ষক। অতিরিক্ত সময় স্পটকিক থেকে গ্যাব্রিয়েল জেসুসের শট পেরুইয়ান গোলরক্ষক গালেসে আটকে না দিলে হাফডজন গোলের স্বাদ নিয়ে মাঠ ছাড়তো তিতের দল।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর