× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২০ জুলাই ২০১৯, শনিবার

স্মিথকে হুঁশিয়ারি আর্চারের

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ২৫ জুন ২০১৯, মঙ্গলবার, ৯:১৪

ভারতীয় প্রিমিয়ার লীগে (আইপিএল) রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে খেলেছেন জোফরা আর্চার-স্টিভেন স্মিথ। লর্ডসে আজ তারা একে অন্যের প্রতিপক্ষ। আর এই ম্যাচ সামনে রেখে ইংলিশ গতি তারকা আর্চার অজি ব্যাটসম্যান স্মিথকে হুঁশিয়ারি দিলেন। আর্চার বলেছেন, ‘যখন ওদের সঙ্গে খেলি তখন সম্পর্কটা বন্ধুত্বপূর্ণ। কিন্তু ওদের বিপক্ষে সেটি হবে উল্টো।’
রাজস্থান রয়্যালসে আর্চারের সতীর্থ হিসেবে রয়েছেন স্বদেশি বেন স্টোকসও। দু’জনই স্মিথের শক্তি-দুবর্লতা সম্পর্কে জানেন। আইপিএল থেকে পাওয়া ওই অভিজ্ঞতা আজ কাজে লাগাতে চান আর্চার। তিনি বলেন, ‘আশা করি, ও (স্মিথ) যখন মাঠে আসবে তখন আমি ও বেন (স্টোকস) করণীয় কাজটা করতে পারবো।’ চলতি বিশ্বকাপে আগুনে বোলিং করছেন আর্চার।
৬ ম্যাচে ১৭.৯৩ গড়ে নিয়েছেন ১৫ উইকেট। তবে বিগ ব্যাশ টি-টোয়েন্টি লীগে হোবার্ট হ্যারিকেনের হয়ে খেলার সুবাদে আর্চারকে আগে থেকেই চেনেন অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যানরা। অস্ট্রেলিয়ার বর্তমান অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ, উইকেটরক্ষক অ্যালেক্স ক্যারি ও অলরাউন্ডার মার্কাস স্টইনিস-গ্লেন ম্যাক্সওয়েল তো নিয়মিত মোকাবিলা করেছেন আর্চারকে। আর অজিদের বর্তমান বোলিং কোচ অ্যাডাম গ্রিফিথ হোবার্টেরও কোচ। তিনিও কাছে থেকে দেখেছেন এই গতি তারকাকে। অস্ট্রেলিয়ার প্রধান কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার বলেন, দুদলের খেলোয়াড়রা একে অন্যেকে চেনে-জানে। এটাতো ভালো ব্যাপার। আর্চার প্রতিভাবান বোলার। গতি, মুভমেন্ট সবই দারুণ।

পরিসংখ্যানে ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া দ্বৈরথ
মুখোমুখি ইংল্যান্ডের জয় অস্ট্রেলিয়ার জয় টাই/ফল হয়নি
১৪৭ ৬১ ৮১ ২/৩
বিশ্বকাপে মুখোমুখি ইংল্যান্ডের জয় অস্ট্রেলিয়ার জয়
৭ ২ ৫
দলীয় সর্বোচ্চ
দল স্কোর ভেন্যু সাল
ইংল্যান্ড ৪৮১/৬ নটিংহ্যাম ২০১৮
অস্ট্রেলিয়া ৩৪২/৯ মেলবোর্ন ২০১৫
দলীয় সর্বনিম্ন
দল স্কোর ওভার ভেন্যু সাল
অস্ট্রেলিয়া ৭০ ২৫.২ এজবাস্টন ১৯৭৭
ইংল্যান্ড ৮৬ ৩২.৪ ম্যানচেস্টার ২০০১
রান/উইকেটের ব্যবধানে বড় জয়
জয়ী ব্যবধান টাগের্ট ভেন্যু সাল
ইংল্যান্ড ২৪২ রান ৪৮২ নটিংহ্যাম ২০১৮
অস্ট্রেলিয়া ১৬২ রান ২৭৩ মেলবোর্ন ১৯৯৯
অস্ট্রেলিয়া ১০ উইকেট ১১৮ সিডনি ২০০৩
অস্ট্রেলিয়া ৯ উইকেট ১৭৯ মেলবোর্ন ১৯৯৯
রান/উইকেটের ব্যবধানে ছোট জয়
জয়ী ব্যবধান টার্গেট ভেন্যু সাল
অস্ট্রেলিয়া ২ রান ২৫০ এজবাস্টন ১৯৮১
ইংল্যান্ড ৭ রান ১৫৩ ব্রিসবেন ১৯৯৯
ইংল্যান্ড ১ উইকেট ২১৩ ম্যানচেস্টার ২০১০
অস্ট্রেলিয়া ১ উইকেট ৩০১ ব্রিসবেন ২০১৪
সর্বাধিক রান
খেলোয়াড় ম্যাচ রান সর্বোচ্চ গড় ১০০/৫০
এউইন মরগান ৫১ ১৮১৫ ১২১ ৪১.২৫ ৩/১৩
রিকি পন্টিং ৩৯ ১৫৯৮ ১২৬ ৪৮.৪২ ৫/৮
মাইকেল ক্লার্ক ৪৪ ১৪৩০ ১০৫ ৪৩.৩৩ ১/১১
গ্রাহাম গুচ ৩২ ১৩৯৫ ১৩৬ ৪৬.৫০ ৪/৯
শেন ওয়াটসন ৪৩ ১৩০৬ ১৬১* ৩৬.২৭ ৩/৫
*অস্ট্রেলিয়ার বর্তমান দলে থাকা ব্যাটসম্যানদের মধ্যে অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চের রান সর্বাধিক। ২৫ ম্যাচে ৫০.১৩ গড়ে ১১৫৩ রান করেছেন ফিঞ্চ। ৬ সেঞ্চুরি, ৪ হাফসেঞ্চুরি।
সর্বাধিক উইকেট
খেলোয়াড় ম্যাচ উইকেট সেরা গড় ইকো.
ব্রেট লি ৩৭ ৬৫ ৫/৩০ ২৪.২১ ৪.৮০
গ্লেন ম্যাকগ্রা ৩৩ ৫৩ ৪/২৫ ২২.৯৬ ৪.১৩
শেন ওয়াটসন ৪৩ ৩৯ ৩/১৬ ৩১.৪৩ ৫.০১
জেমস অ্যান্ডারসন ৩২ ৩৮ ৪/৫৫ ৩৯.৫৭ ৫.২৫
মিচেল জনসন ২৫ ৩৭ ৪/৪৫ ২৮.১৩ ৪.৯৪
*অস্ট্রেলিয়ার বর্তমান দলের বোলারদের মধ্যে ডানহাতি পেসার প্যাট কামিন্স ১২ ম্যাচে ২৭.৯০ গড়ে ২২ উইকেট নিয়েছেন। আর ইংল্যান্ডের বর্তমান দলের বোলারদের মধ্যে সর্বাধিক ৩৫ উইকেট (১৯ ম্যাচ) লেগস্পিনার আদিল রশিদের।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর