× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৩ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার
জমি নিয়ে বিরোধ

গ্রামবাসীর ওপর হামলার অভিযোগে ভারতে এক কর্নেল ও ৪০ সেনা সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২৫ জুন ২০১৯, মঙ্গলবার, ১:০১

জমি নিয়ে বিরোধে মহারাষ্ট্রে একটি গ্রামের অধিবাসীদের প্রহার ও ভয়ভীতি প্রদর্শনের জন্য ভারতীয় সেনাবাহিনীর একজন কর্নেল ও ৪০ সেনা সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। মামলায় বলা হয়েছে, ওই কর্নেল তার ব্যাটালিয়নের সদস্যদের নিয়ে গ্রামে উপস্থিত হয়ে লোকজনকে অস্ত্র ব্যবহার করে ভয় দেখান। তার নাম কর্নেল কেদার গাইকোয়াদ। ঘটনাটি ঘটেছে পুনের কাছে রাজগুরু নগরে। সেখানে বসবাসকারী গ্রামবাসীর সম্পত্তিকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন জি নিউজ।

মামলার অভিযোগে বলা হয়েছে, ওই কর্নেলের পিতা সম্প্রতি পুনের কাছে ওই গ্রামে ৬৪ একর জমি কিনেছেন। কিন্তু এই জমি নিয়ে গ্রামের সুনীল ভার্নির সঙ্গে তার বিরোধ সৃষ্টি হয়েছে।
কর্নেল গাইকোয়াদের পিতার অভিযোগ, তিনি যে জমি কিনেছেন তা অবৈধভাবে দখল করে রেখেছেন সুনীল। অন্যদিকে সুনীলের দাবি, তিনি আগেই ওই জমি কিনেছেন এবং দীর্ঘদিন ধরে তাতে চাষাবাদ করছেন। ওই জমিকে কেন্দ্র করে সুনীল ও ওই কর্নেলের পিতার মধ্যে সম্প্রতি ধস্তাধস্তি হয়। কর্নেল গাইকোয়াদকে পোস্টিং দেয়া হয়েছে হায়দরাবাদে। পরে তিনি এ খবর পান এবং তার ব্যাটালিয়নের ৪০ সদস্যকে সঙ্গে নিয়ে ওই গ্রামে উপস্থিত হন এবং তার পিতার সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে লিপ্ত হওয়ার অভিযোগে গ্রামবাসীর সঙ্গে মুষ্টিযুদ্ধে লিপ্ত হন। এ সময় তারা সুনীল ভার্নিকে প্রহার করেন বলে অভিযোগে বলা হয়েছে। এ ছাড়া অস্ত্র ব্যবহার করে লোকজনকে ভয়ভীতি দেখানো হয়েছে।

এ বিষয়ে ওই কর্নেল ও তার ব্যাটালিয়নের অন্য সদস্যদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য পারমিশন চাওয়া হয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনীর কাছে। অন্যদিকে মামলা করা হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর