× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৩ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার

মৌলভীবাজার হাসপাতালে চিকিৎসায় অবহেলার অভিযোগ

বাংলারজমিন

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি | ২৭ জুন ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৮:৪১

মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা সদর হাসপাতালে রাজনগর উপজেলার মনসুরনগর ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতার চিকিৎসায় অবহেলার অভিযোগ উঠেছে। হার্নিয়া অপারেশনের পর তিন দিন পর্যন্ত হাসপাতাল কেবিনে অবস্থান করলেও সিনিয়র কোনো ডাক্তার এই রোগীকে পর্যবেক্ষণ করতে আসেন নি। ইউপি চেয়ারম্যান মিলন বখত জানান, হার্নিয়া অপারেশন করাতে চলতি মাসের ২১শে জুন মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা সদর হাসপাতালের ভিআইপি কেবিনে ভর্তি হন। পরে ২ দিন প্রয়োজনীয় পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে গত ২৩শে জুন সকাল ১১টা থেকে ২টা পর্যন্ত অপারেশন করেন হাসপাতালের সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. সুব্রত কুমার রায়। অপারেশনের পরবর্তী ৩ দিন পর্যন্ত ডা. সুব্রত কুমার রায় রোগীকে এসে একবারও দেখেননি। পরবর্তীতে তিনি বিষয়টি হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. পার্থ সারথি দত্ত কাননগোকে জানালে তিনি এসে দেখেন এবং অন্যান্য ডাক্তারকে উনাকে দেখাশোনা করার দায়িত্ব দেন। তত্ত্বাবধায়কের নির্দেশে ২৫শে জুন রাতে ডা. সুব্রত কুমার রায় রোগীকে দেখতে আসলে তিনি (মিলন বখত) ওই ডাক্তারের চিকিৎসা নেননি।  এ বিষয়ে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. পার্থ সারথি দত্ত কাননগো জানান, অপারেশন করার পরেই ডাক্তার সুব্রত কুমার রায় অসুস্থ হয়ে পড়ায় তিনি ছুটিতে ছিলেন। যার কারণে চেয়ারম্যান মিলন বখত’কে এসে দেখতে পারেননি।
অন্য ডাক্তাররা উনাকে চিকিৎসা দিয়েছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর