× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৯ জুলাই ২০১৯, শুক্রবার

এক ম্যাচে দুই রেকর্ডের হাতছানি রোহিতের

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ৯ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার, ৯:৪০

পৃথক দুই রেকর্ডের হাতছানি রোহিত শর্মার। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আজ সেমিফাইনালে সেঞ্চুরি হাঁকালে স্বদেশি কিংবদন্তি ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকারের দুই রেকর্ড ভেঙে দেবেন ভারতীয় ওপেনার রোহিত শর্মা। ১৯৯২ থেকে ২০১১ পর্যন্ত ৬টি বিশ্বকাপে অংশ নেন শচীন। ৪৪ ম্যাচে ৬টি সেঞ্চুরি হাঁকান তিনি। ২০১৫ ও ২০১৯- দুই বিশ্বকাপেই ৬ সেঞ্চুরি হয়ে গেছে রোহিতের। শচীনের সর্বাধিক সেঞ্চুরির রেকর্ড ছুঁতে রোহিতের লাগলো মাত্র ১৬ ইনিংস! এর মধ্যে চলতি আসরেই ৫ সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন তিনি। তাতে ২০১৫ বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার কুমার সাঙ্গাকারার ৪ সেঞ্চুরির রেকর্ড ভেঙে দেন ৩২ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যান। আর ২০০৩ বিশ্বকাপে ফাইনালসহ ১১ ম্যাচে ৬৭৩ রান করেছিলেন শচীন।
এখন পর্যন্ত যেটি এক আসরে সর্বাধিক রানের রেকর্ড। আজ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ২৭ রান করলে শচীনের এই কীর্তিকেও ছাড়িয়ে যাবেন রোহিত। ইতিমধ্যে ৮ ম্যাচে ৬৪৭ রান করে ফেলেছেন তিনি।
সেঞ্চুরি দিয়েই বিশ্বকাপ শুরু করেন রোহিত। প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ১২২ রানে অপরাজিত ছিলেন। এরপর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৫৭, পাকিস্তানের বিপক্ষে ১৪০, আফগানিস্তানের বিপক্ষে ১, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ১৮, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১০২ ও বাংলাদেশের বিপক্ষে ১০৪ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১০৩ রানের ইনিংস খেলেন রোহিত। উল্লেখ্য, রোহিত-শচীনসহ  বিশ্বকাপের এক আসরে ৬০০’র বেশি রান করেছেন ৫ ক্রিকেটার। বাকি তিনজনের দুজন অস্ট্রেলিয়ান। ম্যাথিউ হেউডেন ও ডেভিড ওয়ার্নার। অপরজন বাংলাদেশের সাকিব আল হাসান। পাকিস্তানের বিপক্ষে হাফসেঞ্চুরিতে ৮ ম্যাচে ৬০৬ রানে আসর শেষ করেন সাকিব।
বিশ্বকাপের এক আসরে সাতটি ৫০-উর্ধ্ব রানের ইনিংস খেলার রেকর্ড কেবল শচীন টেন্ডুলকার (২০০৩) ও সাকিব আল হাসানের (২০১৯)। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে এ রেকর্ড স্পর্শের সুযোগ রোহিত শর্মার। বিশ্বকাপে টানা চার সেঞ্চুরির সুযোগটাও রোহিতের সামনে। ২০১৫ বিশ্বকাপে এমন নজির গড়েন লঙ্কান গ্রেট ব্যাটসম্যান কুমার সাঙ্গাকারা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর