× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৯ জুলাই ২০১৯, শুক্রবার

নিজেদের দিনে যেকোনো কিছু ঘটতে পারে : উইলিয়ামসন

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১১ জুলাই ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ১২:৪৭

ভারতকে হারিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠলো নিউজিল্যান্ড। আসরের অন্যতম ফেভারিট দল ভারতকে ১৮ রানে হারিয়ে ফাইনালের টিকিট কাটলো কেন উইলিয়ামসনের দল। ভারতের বিপক্ষে এমন দুর্দান্ত জয়ে বেশ খুশি কিউই অধিনায়ক উইলিয়ামসন। ম্যাচ শেষে উইলিয়ামসন বলেন, ‘এটা সত্যিই আলাদা। অসাধারণ দুই দিনের সেমিফাইনাল খেললাম। তবে ম্যাচটা ভীষণ কঠিন ছিল। আমাদের দ্রুতই পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নিতে হয়েছে। দুই দলই জানতাম এটা হাই স্কোরিং উইকেট হবে না।
আমরা ভেবেছিলাম ২৪০-২৫০ রান করলেই ভারতকে চাপে ফেলতে পারবো।’

ভারতের বিপক্ষে জয়ের পর ফাইনালে ভারতীয় দশর্কদের সমর্থন চাইলেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। তিনি বলেন, ‘আমরা আন্ডারডগ হিসেবে সেমিফাইনালে উঠেছিলাম। আসলে নিজেদের দিনে যেকোনো কিছু ঘটতে পারে। ভারতের হারে আমার মনে হয় ভারতীয় সমর্থকরা খুব বেশি রেগে যায়নি। এবং আমি আশা করবো ফাইনালে ওই ১.৫ মিলিয়ন সমর্থকদের সমর্থন পাব আমরা।’
মঙ্গলবার টস জিতে আগে ব্যাটিংয়ে নামে নিউজিল্যান্ড। শুরুতেই উইকেট খুইয়ে চাপে পরে কিউইরা। তবে অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন ও রস টেইলরের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে মান বাঁচে নিউজিল্যান্ডের। ব্যাট হাতে ৬৭ রানের ইনিংস খেলে উইলিয়ামসন আর টেইলরের ব্যাট থেকে আসে ৭৪ রান। এতে ২৩৯ রানের পুজি পায় কিউইরা। পরে বোলিংয়ে এসে ট্রেন্ট বোল্ট ও ম্যাথ হ্যারির দুর্দান্ত বোলিংয়ে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের টুটি চেপে ধরে। উইলিয়ামসন বলেন, ‘এ জয়ে সবাই অবদান রেখেছে। বোলিংয়ে এসে আমরা চেয়েছি ভালো জায়গায় বল করতে আর ভারতের ওপর চাপ তৈরি করতে। দ্রুত উইকেট নিতে চেয়েছিলাম। এবং দ্রুত উইকেট তুলে নিয়ে দারুণ শুরু করেছে আমাদের বোলারা।’

ব্যাট হাতে মহেন্দ্র সিং ধোনি ও রবীন্দ্র জাদেজা চোখ রাঙাচ্ছিলো কিউইদের। দুজনে মিলে ১১৬ রানে জুটি গড়েন। এনিয়ে উইলিয়ামসন বলেন, ‘জাদেজা ও ধোনি যখন ব্যাটিং করছিলো মনে হচ্ছিলো তারাই ম্যাচ জিতিয়ে দেবে। কিন্তু আমাদের ফিল্ডাররা দারুণ করেছে। কঠিন ম্যাচগুলোর মধ্যে এটি একটি।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর