× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৮ জুলাই ২০১৯, বৃহস্পতিবার

ধোনি কেন পাঁচ-এ নয়, প্রশ্ন শচীনদের

ক্রিকেট বিশ্বকাপ-২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক | ১২ জুলাই ২০১৯, শুক্রবার, ৮:০৯

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ২৪০ রানের টার্গেটে সাত নম্বরে ব্যাট করতে নামেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টের এ সিদ্ধান্ত দেশটির সাবেক ক্রিকেটারদের পছন্দ হয়নি।
‘ট্যাকটিক্যাল ব্লান্ডার’ মন্তব্যটি সৌরভ গাঙ্গুলী ও ভিভিএস লক্ষ্মণের। তাদের মতে, মহেন্দ্র সিং ধোনিকে সাত নম্বরে ব্যাটিংয়ে পাঠিয়ে কৌশলগতভাবে বড় এক ভুল করেছে ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট।
ম্যানচেস্টারে মেঘলা কন্ডিশনের সদ্ব্যবহার করে দারুণ শুরু করেছিলেন কিউই পেসাররা। ৩.১ ওভারের মধ্যে টপ অর্ডার হারিয়ে রীতিমতো কাঁপছিল ভারতীয় দল। এমন পরিস্থিতিতে ঋষভ পান্ত, দিনেশ কার্তিক ও হার্দিক পান্ডিয়া ব্যাটিংয়ে নেমেছেন অভিজ্ঞ ধোনিরও আগে। ভারত ৭১ রানে ৫ উইকেট হারানোর পর ব্যাটিং অর্ডারে সাত নম্বরে নেমেছেন ধোনি। সপ্তম উইকেটে রবীন্দ্র জাদেজার সঙ্গে ১১৬ রানের জুটিতে ম্যাচও ঘুরিয়ে দেয়ার পথে ছিলেন ভারতের সাবেক এ অধিনায়ক। কিন্তু ৪৯তম ওভারে ধোনি রানআউট হওয়ার পর ভারতকে হারতে হয় ১৮ রানে।
বিশ্বকাপে টিভি বিশ্লেষক হিসেবে কাজ করা ভারতের সাবেক ব্যাটসম্যান ভিভিএস লক্ষ্মণ বলেন, ‘পান্ডিয়ার আগে ধোনির নামা উচিত ছিল।
এটা গুরুতর কৌশলগত ভুল। কার্তিকেরও আগে নামা উচিত ছিল ধোনির। তার জন্য মঞ্চ প্রস্তুতই ছিল। ২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনালেও যুবরাজ সিংয়ের আগে চারে ব্যাটিংয়ে নেমে দলকে শিরোপা জিতিয়েছিলেন ধোনি’। ম্যাচ শেষে বিশ্লেষণে একই কথা বলেন ভারতের সফল অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী। বিশ্বকাপে ধারাভাষ্যকারের ভূমিকা নেয়া গাঙ্গুলী বলেন, পন্তের মতো তরুণেরা যখন উইকেটে, তখন শুধু ধোনির ব্যাটিং নয়, তার বরফশীতল মস্তিষ্কেরও দরকার ছিল। তখন অভিজ্ঞতার প্রয়োজন ছিল ভারতের। পন্ত ব্যাটিংয়ের সময় উইকেটে ধোনি থাকলে কোনো অবস্থাতেই তাকে বাতাসের বিরুদ্ধে ওই শট খেলতে দিত না। ইংল্যান্ডে এটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। মিড অফ ও মিড অন ওপরে থাকা অবস্থায় ধোনি হয়তো পান্তকে পেসারদের বিপক্ষে আগ্রাসী হতে বলতো, কারণ এ কাজে সে ভালো। ধোনিকে তাই আগে ব্যাটিংয়ে নামতে হতো। শুধু তার ব্যাটিং নয়, দরকার ছিল ঠান্ডা মাথারও। চাপের মুহূর্তে সে কোনোভাবেই উইকেট পড়তে দিত না। জাদেজা ব্যাটিং করার সময় ধোনি কিন্তু ছিল। এমন রান তাড়ায় ধোনির মতো ব্যাটসম্যানকে আপনি সাতে নামাতে পারেন না।’ ভারতীয় নির্বাচকদেরও সমালোচনা করেছেন সৌরভ। গত দেড় বছরের ব্যবধানে নির্বাচকেরা মিডল অর্ডারের ভিত শক্ত করতে পারেননি বলে মনে করেন সাবেক এ ওপেনার। ধোনিকে সাতে নামিয়ে কোহলি যে কৌশলগত ভুল করেছেন, তা বলেছেন শচীন টেন্ডুলকারও। ভারতীয় গ্রেট শচীন বলেন, ‘ম্যাচের অমন পরিস্থিতিতে অভিজ্ঞ ধোনিকেই কি নামানো উচিত ছিল না? জাদেজার সঙ্গে শেষ পর্যন্ত সে কিন্তু কথা বলেছে, সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করেছে। সম্ভবত হার্দিকের আগে ধোনি নামতে পারতো। পাঁচে কার্তিকের ব্যাট করতে নামা ঠিক প্রথাগত সিদ্ধান্ত বলে মনে হয়নি।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর