× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৮ জুলাই ২০১৯, বৃহস্পতিবার

ধোনির রান আউট এবং ‘নো বল’ বিতর্ক

ক্রিকেট বিশ্বকাপ-২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক | ১২ জুলাই ২০১৯, শুক্রবার, ৮:১০

৪৯তম ওভারের প্রথম বলেই ছক্কা হাঁকালেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। দ্বিতীয় বল ফাইন লেগে ঠেলে দৌড়ে ২ রান নিতে গেলেন। কিন্তু দ্বিতীয় রানটা পূর্ণ করার আগেই দারুণ এক থ্রো’তে স্টাম্প ভেঙে দিলেন মার্টিন গাপটিল। ভারতের ফাইনাল স্বপ্ন শেষ হয়ে গেল নিমিষেই। কিন্তু ধোনির ওই রানআউট বিতর্ক বয়ে এনেছে। কারণ, ওটা ছিল ‘নো বল’। আর তা নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে ভারত জুড়ে। আইসিসিকে রীতিমতো ধুয়ে দিয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেট সমর্থকরা।
ধোনি যখন আউট হন, ফিল্ডার পজিশনের কারণে ওটা ছিল ‘নো বল’।
নিয়মানুযায়ী তৃতীয় পাওয়ার প্লে’তে ৩০ গজের বাইরে সর্বোচ্চ ৫ জন ফিল্ডার থাকার কথা। কিন্তু ৪৯তম ওভারে ত্রিশ গজ বৃত্তের বাইরে ছিলেন নিউজিল্যান্ডে ৬ জন ফিল্ডার।  আর ফাইন লেগে ফিল্ডিং করছিলেন গাপটিল। কিন্তু ব্যাপারটা মাঠ আম্পায়ার রিচার্ড ক্যাটেলবরো কিংবা রিচার্ড ইলিংওর্থ কারোরই চোখে পড়েনি। আর তা আম্পায়ারদের চোখে পড়লেও নিয়ম অনুযায়ী আউটই হতেন ধোনি। কিন্তু আম্পায়ার ‘নো’ ডাকলে ভারতের এক বল বাড়তো এবং পরের বলে ফ্রি-হিটের সুযোগ পেতো।  বিশ্বকাপের সেমিফাইনালের মতো ম্যাচে এমন ভুল কেন হবে সে প্রশ্নটাই তুলেছেন সবাই। তখন জয়ের জন্য ৯ বলে ২৪ রান প্রয়োজন ছিল ভারতের। আম্পায়ারের ভুল মেনে নিতে পারছেন না ভারতীয় ক্রিকেট সমর্থকরা। হর্ষপ্রিত রাজপুত নামের একজন টুইটারে লেখেন, ‘আম্পায়ারের উচিত ছিল ওটাকে ডেড বল অথবা নো বল ঘোষণা করা। তারা এত কাণ্ডজ্ঞানহীন হয় কীভাবে।’ গুরু দারাহাস গুন্না নামের আরেকজন বলেন, ‘নিউজিল্যান্ড চিট করেছে। চিট করে ধোনিকে আউট করেছে।  

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর