× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৪ জুলাই ২০১৯, বুধবার

মন্ত্রিসভায় নতুন মুখ ইন্দিরা, ইমরান আহমেদের পদোন্নতি

প্রথম পাতা

বিশেষ প্রতিনিধি | ১২ জুলাই ২০১৯, শুক্রবার, ১০:০২

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী ইমরান আহমেদ পদোন্নতি পেয়ে মন্ত্রী হতে যাচ্ছেন। এছাড়া নতুন প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিতে যাচ্ছেন আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ও সংসদ সদস্য ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা। তাকে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেয়া হতে পারে। কারণ এ মন্ত্রণালয়ে কোনো মন্ত্রী বা প্রতিমন্ত্রী নেই। তবে কোন মন্ত্রী বা প্রতিমন্ত্রীর দপ্তর বদল হবে কিনা ওই বিষয়টি নিশ্চিত করা যায়নি। মন্ত্রিসভার শপথের বিষয়টি নিশ্চিত করে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের বলেছেন, ১৩ই জুলাই শনিবার বঙ্গভবনে শপথ অনুষ্ঠিত হবে। গতকাল সচিবালয়ে ‘জেলা প্রশাসক সম্মেলন-২০১৯’ নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ তথ্য জানান। মন্ত্রিসভা সমপ্রসারিত হচ্ছে বলে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে, এ বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের প্রস্তুতি রয়েছে কি না-জানতে চাইলে শফিউল আলম বলেন, আমরা প্রস্তুত।
শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় বঙ্গভবনে মন্ত্রিসভার নতুন সদস্যদের শপথ অনুষ্ঠিত হবে। তবে কতজন শপথ নেবেন সে বিষয়ে কিছু জানাননি মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

এদিকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর সরকার গঠনের ছয় মাসের মাথায় মন্ত্রিসভা সমপ্রসারিত হচ্ছে। ২০১৮ সালের ৩০শে ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর গত ৭ই জানুয়ারি টানা তৃতীয়বারের মতো সরকার গঠন করে আওয়ামী লীগ। ৪৬ সদস্যের ওই মন্ত্রিসভায় ২৪ মন্ত্রী, ১৯ প্রতিমন্ত্রী ও তিনজন উপমন্ত্রী রয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিজের অধীনে ছয় মন্ত্রণালয় রেখেছেন। এর আগে গত ১৯শে মে মন্ত্রিসভা পুনর্বিন্যাস করা হয়। তখন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানকে তথ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী করা হয়। এছাড়া ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারকে একই মন্ত্রণালয়ের ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের মন্ত্রী করা হয়। এ মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের দায়িত্ব দেয়া হয় প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলককে। একই সঙ্গে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের অধীন স্থানীয় সরকার বিভাগের মন্ত্রী করা হয় তাজুল ইসলামকে। পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পান স্বপন ভট্টাচার্য।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর