× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২০ আগস্ট ২০১৯, মঙ্গলবার

ক্রাইস্টচার্চ হামলা: অস্ত্র জমা দিচ্ছেন নিউজিল্যান্ডবাসীরা

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৪ জুলাই ২০১৯, রবিবার, ১:১৭

সরকারি নিষেধাজ্ঞা মেনে আধা-স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র জমা দেয়া শুরু করেছেন নিউজিল্যান্ডবাসীরা। চলতি বছরের মার্চ মাসে ক্রাইস্টচার্চে দুই মসজিদে এক অস্ট্রেলীয় বন্দুকধারীর আধা-স্বয়ংক্রিয় বন্দুক নিয়ে প্রার্থনারত মুসলমানদের ওপর হামলা চালান। এই ঘটনার পরপরই আধা-স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র নিষিদ্ধ ঘোষণা করে নিউজিল্যান্ড সরকার। এক ঘোষণায় জানায়, আধা-স্বয়ংক্রিয় অস্ত্রগুলো মালিকদের কাছ থেকে কিনে নেবে সরকার। ওই ঘোষণার বাস্তবায়ন হিসেবেই এই অস্ত্র জমা দেয়া শুরু হয়েছে। এ খবর দিয়েছে বিবিসি।
খবরে বলা হয়, শনিবার অস্ত্র জমা দেয়ার প্রথম দিনে ক্রাইস্টচার্চে ২৫০ জনের বেশি মানুষ অস্ত্র জমা দেন। এর মধ্যে ২২৪ জন বন্দুকের মালিককে ২ লাখ ৩০ হাজার ডলার পরিশোধ করা হয়। অস্ত্রগুলো জমা নেয়ার পর ধ্বংস করে দেয়া হয়।
ক্রাইস্টচার্চেই মার্চ মাসে আধা-স্বয়ংক্রিয় বন্দুকের হামলায় প্রাণ হারিয়েছিল ৫১ জন মানুষ।

ক্রাইস্টচার্চের আঞ্চলিক পুলিশ কমান্ডার মাইক জনসন বলেন, পুলিশরা এই প্রক্রিয়াটিকে আইন মেনে চলা আগ্নেয়াস্ত্র মালিক সম্প্রদায়ের জন্য একটি বড় সুযোগ হিসেবে দেখছে। পাশাপাশি জনগণের কাছ থেকেও বেশ ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া পাওয়া যাচ্ছে। তারা জানাচ্ছে যে, এই প্রক্রিয়া তাদের জন্যও সুবিধাজনক। পুরো ক্যান্টবেরি অঞ্চলজুড়ে ৯০০’র বেশি মানুষ ১ হাজার ৪১৫টি অস্ত্র জমা দেয়ার জন্য নিবন্ধন করেছেন।

অস্ত্র জমা দিয়ে প্রাপ্ত অর্থ নিয়ে বেশ খুশি অনেক মানুষই। এমন একজন ব্যক্তি নাম না প্রকাশের শর্তে নিউজিল্যান্ড হেরাল্ডকে বলেন, আমি আমার আধা-স্বয়ংক্রিয় শিকার করার বন্দুকটি জমা দিয়ে ৬ হাজার ৯০০ ডলার ফেরত পেয়েছি। সত্যি বলতে, আমি ভাবিনি এই প্রক্রিয়াটি আদৌ ন্যায্য হবে। ব্যক্তিগতভাবে আমি অস্ত্র জমা দেয়ার ঘোষণায় উচ্ছ্বসিত ছিলাম না। তবে সরকার এটা বেশ ভালোভাবে সামলিয়েছে।

তবে অখুশি মানুষের তালিকাও ছোট নয়। ক্রাইস্টচার্চের অপর এক বন্দুক মালিক ভিনসেন্ট স্যান্ডার্স স্থানীয় টিভি চ্যানেলকে জানান, তার দাদার ১০০ বছর পুরনো বন্দুকের জন্য তাকে মাত্র ১৫০ ডলার প্রস্তাব করা হয়েছে। এই প্রস্তাবে তিনি অস্ত্র জমা দিবেন না। তিনি বলেন, সরকার পুরো প্রক্রিয়াটি নিয়ে খুব তাড়াহুড়া করেছে। জমা দেয়ার জন্য মাত্র দুই দিন সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। এটা জোরপূর্বক প্রক্রিয়া।
উল্লেখ্য, পুরো অস্ত্র জমা নেয়ার প্রক্রিয়াটির জন্য নিউজিল্যান্ড সরকার মোট ১১ কোটি ডলার ভর্তুকি দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর