× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৪ আগস্ট ২০১৯, শনিবার
জয় পেয়েছে শেখ রাসেল ও রহমতগঞ্জ

মতিনের হ্যাটট্রিকে বসুন্ধরার বড় জয়

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ১৭ জুলাই ২০১৯, বুধবার, ৯:২৩

প্রিমিয়ার ফুটবল লীগে টানা জিতেই শিরোপার পথে এগিয়ে যাচ্ছে বসুন্ধরা কিংস। হারেনি শেখ রাসেল এবং রহমতগঞ্জও। একই দিনে দু’টি হ্যাটট্রিক হয়েছে। নীলফামারীতে নিজেদের মাঠে মতিন মিয়ার হ্যাটট্রিকের সুবাদে ব্রাদার্সকে ০-৫ গোলে বিধ্বস্ত করেছে বসুন্ধরা কিংস। নোয়াখালীতে নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড রাফায়েল ওদউইনের হ্যাটট্রিকের সুবাদে স্বাগতিক নোফেলকে ০-৪ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র। ঢাকায় রহমতগঞ্জ ৩-২ গোলে জিতেছে টিম বিজেএমসির বিপক্ষে। তবে গোপালগঞ্জে স্বাগতিক মুক্তিযোদ্ধাকে ১-১ গোলে রুখে দিয়েছে আরামবাগ।
নীলফামারীর শেখ কামাল স্টেডিয়ামে দুর্দান্ত খেলেছে বসুন্ধরা। গোপীবাগের দলটির বিপক্ষে দলের হয়ে প্রথম হ্যাটট্রিক করলেন স্থানীয় ফরোয়ার্ড মতিন মিয়া।
আর এতেই ৫-০ গোলের বড় ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে বসুন্ধরা কিংস। ৩৯, ৪৯ ও ৬৭ মিনিটে গোল তিনটি করেন জাতীয় দলের এই ফরোয়ার্ড। এছাড়া মোহাম্মদ ইব্রাহিম ও আলমগীর কবির রানা বাকি দু’গোল করেন। এই জয়ে ৫৮ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই থাকল বসুন্ধরা। ১৬ পয়েন্ট নিয়ে তলানীতে ব্রাদার্স। নোয়াখালীর শহীদ বুলু স্টেডিয়ামে রাফায়েল ওদউইনের হ্যাটট্রিকে শেখ রাসেল ৪-০ গোলে হারিয়েছে স্বাগতিক নোফেলকে। রাফায়েল ৪৩, ৭৯ ও ৮৫ মিনিটে গোল তিনটি করেন। প্রিমিয়ার লীগে এ পর্যন্ত নয়টি হ্যাটট্রিক হয়েছে। বসুন্ধরার মতিন মিয়া ষষ্ঠ ও শেখ রাসেলের রাফায়েল ওদউইন সপ্তম হ্যাটট্রিকম্যান। এর মধ্যে নোফেল স্পোর্টিং ক্লাবের গিনির ফরোয়ার্ড ইসমাইল বাঙ্গুরার দু’টি হ্যাটট্রিক রয়েছে। বাকি চারটি হ্যাটট্রিক করেন মুক্তিযোদ্ধার আইভরিকোস্টের বাল্লো ফেমোসা, আরামবাগের জাহিদ হোসেন এবং ঢাকা আবাহনীর নাবীব নেওয়াজ জীবন ও নাইজেরিয়ান সানডে সিজোবা। এদিন বসুন্ধরা হয়ে বাকি গোলটি করেন বিপলু আহমেদ। এই জয়ে ৪২ পয়েন্ট নিয়ে সাইফকে হটিয়ে টেবিলের তৃতীয় স্থানে উঠে এল শেখ রাসেল। ১৬ পয়েন্ট নিয়ে ১১তম স্থানে নোফেল। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে কষ্টার্জিত জয় পেয়েছে রহমতগঞ্জ। বিজেএমসিকে ২-৩ গোলে হারায় তারা। পুরান ঢাকার ক্লাবটির হয়ে কঙ্গোর ফরোয়ার্ড সিও জুনাপিও দু’টি এবং রাকিবুল ইসলাম এক গোল করেন। ব্রাদার্সের হয়ে দু’গোল শোধ দেন আল আমিন এবং ওতাবেক। এদিকে গোপালগঞ্জের শেখ ফজলুল হক মনি স্টেডিয়ামে আরামবাগের জয় রুখে দিয়েছে স্বাগতিক মুক্তিযোদ্ধা। পল এমিল ৬৭ মিনিটে গোল করলে এগিয়ে যায় আরামবাগ (১-০)। কিন্তু ৮৫ মিনিটে সেই গোল শোধ দিয়ে মুক্তিযোদ্ধাকে এক পয়েন্ট এনে দেন ইয়ামুসা কামারা (১-১)।



অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর