× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৫ আগস্ট ২০১৯, রবিবার

পিয়াজের দাম ১৫ দিনের মধ্যে কমে যাবে-বাণিজ্যমন্ত্রী

দেশ বিদেশ

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | ১৭ জুলাই ২০১৯, বুধবার, ৯:৫১

 অতিরিক্ত মুনাফার জন্য বাজারে বিভিন্ন পণ্যের দাম বাড়ানোর কারসাজি বন্ধে সরকার আন্তরিকভাবে প্রচেষ্টা চালাচ্ছে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। তিনি বলেন, ‘অসাধু ব্যবসায়ীরা অতিরিক্ত মুনাফার জন্য বিভিন্ন উৎসবকে বেছে নেয়। আগামী কোরবানির ঈদকে টার্গেট করে তারা পিয়াজের দাম বাড়িয়েছে। বিষয়টি সরকারের নজরে রয়েছে, আমরা বাজার মনিটরিং করছি। আগামী ১৫ দিনের মধ্যে পিয়াজের দাম কমে যাবে। গতকাল মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে আমরা জাতীয় রপ্তানির লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করতে পেরেছি। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে মোট রপ্তানি (পণ্য ও সেবা খাত) আয়ের পরিমাণ ছিল ৪১ বিলিয়ন ডলার।
২০১৮-১৯ অর্থবছরের মোট রপ্তানির লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৪৪ বিলিয়ন ডলার। এ বছর আমরা আয় করেছি ৪৬.৩৭ বিলিয়ন ডলার। রপ্তানি প্রবৃদ্ধির এ হার লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় ৫.৩৯ শতাংশ বেশি। মন্ত্রী বলেন, এই অর্থবছরের উল্লেখযোগ্য সাফল্য হচ্ছে, কৃষিজ পণ্য রপ্তানি খাতে রপ্তানির মোট পরিমাণ ৯০৮.৯৬ মিলিয়ন ডলার। যদিও চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য রপ্তানিতে প্রবৃদ্ধির হার কমেছে। এই খাতে মোট রপ্তানির পরিমাণ ১.০২ বিলিয়ন ডলার। পাট ও পাটজাত পণ্য রপ্তানির প্রবৃদ্ধি নেতিবাচক হলেও ওষুধ, প্লাস্টিক পণ্য, বিশেষায়িত টেক্সটাইল, আসবাবপত্র ইত্যাদি খাতে প্রবৃদ্ধি অর্জন হয়েছে।
বাণিজ্যমন্ত্রী জানান, যুক্তরাষ্ট্রে এ যাবৎকালের সর্বোচ্চ রপ্তানি হয়েছে ৬.৮৮ বিলিয়ন ডলার। যা গত অর্থবছরের তুলনায় ১৪.৯২ শতাংশ বেশি। ইউরোপীয় ইউনিয়নে রপ্তানির পরিমাণ ২২.৮৬ বিলিয়ন ডলার, প্রবৃদ্ধির হার ৭.১৩ শতাংশ। ভারতে রপ্তানির পরিমাণ ১.২৫ বিলিয়ন ডলার, প্রবৃদ্ধির হার ৪২.৯২ শতাংশ। চীনে রপ্তানির পরিমাণ ৮৮.৩১ মিলিয়ন ডলার, প্রবৃদ্ধির হার ৪৫.৪৪ শতাংশ। এছাড়া রাশিয়ায় রপ্তানির পরিমাণ ৫৪৮ মিলিয়ন ডলার, প্রবৃদ্ধির হার ১২.৯৯ শতাংশ। তিনি বলেন, রপ্তানি বাণিজ্যকে সহজীকরণ ও রপ্তানিকারকগণকে বিভিন্ন ধরনের প্রণোদনা এবং সহযোগিতার মাধ্যমে বর্তমান সরকার দেশের রপ্তানি বৃদ্ধিতে একাগ্র চিত্তে কাজ করে যাচ্ছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর