× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৫ আগস্ট ২০১৯, রবিবার

নির্বাচকের পদ থেকে সরে দাঁড়ালেন ইনজামাম

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৮ জুলাই ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৮:৩৪

বিশ্বকাপের পরই পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) সঙ্গে চুক্তি শেষ হয়েছে দলের প্রধান নির্বাচক ইনজামাম উল হকের। ইংল্যান্ড ও ওয়েলস বিশ্বকাপ শুরুর আগেই পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) থেকে জানিয়ে দেয়া হয়েছিল ইনজামামের সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করবে না পাকিস্তান। চুক্তি অনুযায়ী আগামী ৩০ই জুলাই পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে চুক্তি শেষ হবে পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ও প্রধান নির্বাচক ইনজামাম উল হকের। তবে এর আগেই নিজের পদ থেকে সরে দাঁড়ালেন ইনজামাম। গতকাল নির্বাচকের পদ থেকে সরে দাঁড়িয়ে ইনজামাম বলেন, ‘প্রায় তিন বছরের অধিক সময় ধরে পাকিস্তান দলের নির্বাচক কমিটিতে থাকার পর আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি, নতুন করে আর চুক্তি করবো না। সেপ্টেম্বর থেকে আইসিসি টেস্ট চ্যম্পিয়নশিপ শুরু হচ্ছে। ২০২০ সালে টি-টোয়েন্টি এবং ২০২৩ সালে আছে ওয়ানডে বিশ্বকাপ। আমি মনে করি, পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের নতুন একজন প্রধান নির্বাচক নিয়োগ দেয়ার এখনই সঠিক সময়।
যিনি কিনা নতুন পরিকল্পনা, সবকিছু নতুন করে শুরু করতে পারবে।’
এবারের আসরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বাজেভাবে হেরে বিম্বকাপ মিশন শুরু করে পাকিস্তান। কিন্তু শেষের টানা চার জয়ে সেমিফাইনালের সম্ভাবনা জাগিয়ে ছিলেন। নিউজিল্যান্ডের সমান ১১ পয়েন্ট নিয়েও নেট রান রেটের হিসেব নিকাশে সেমিফাইনালে উঠতে ব্যার্থ হয় সরফরাজের দল। তাতে রাউন্ড রবিন লীগের থেকেই বিশ্বকাপ অভিযান শেষ হয় পাকিস্তানের। বিশ্বকাপ নিয়ে ইনজামাম বলেন, ‘এবারের বিশ্বকাপে পাকিস্তান ভালোই খেলেছে। পাকিস্তান আসরের দুই ফাইনালিস্টকেই হারিয়েছে। কিন্তু আমাদের দুঃভাগ্যে নেট রান রেটের হিসেবে আমরা বাদ পেরে গেছি।’ এবারের পাকিস্তানের বিশ্বকাপ দল নির্বাচন নিয়ে বেশ সমালোচনা হয়েছে। শুরুতে দলে মোহাম্মদ আমির, ওয়াহাব রিয়াজের মতো অভিজ্ঞদের বাদ দিয়ে বিশ্বকাপ দল সাজানো হয়। পরে অবশ্য আবার তাদেরকে দলে নেয়া হয়। দলে তার ভাতিজা ইমাম উল হককে খেলোনো নিয়েও সমালোচনায় পরতে হয়েছে ইমজামাম উল হককে। এনিয়ে  পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক বলেন, ‘১৫ সদস্যের দল নির্বাচন করা হয় কোচ ও অধিনায়কের সঙ্গে আলোচনা করে। কিন্তু মাঠে একাদশ নির্বাচন করে কোচ ও অধিনায়ক সেখানে দল নির্বাচকদের কিছুই করার নেই। আর ইমামের ব্যাপাটা আমার জন্য খুব বিব্রতকর। সে অনুর্ধ্ব-১৯ দল থেকে ভালো খেলে জাতীয় দলে এসেছে। আমি তখন নির্বচক ছিলাম না। সে ভালো ব্যাটিং করে, তার ব্যাটিং গড় পঞ্চাশের উপরে। দয়া করে তার পারফর্মেন্স দেখুন। সবার কাছে আমার অনুরোধ ব্যক্তিগত ভাবে নিবেন না।’ ২০১৬ সালের এপ্রিলে পাকিস্তানের প্রধান নির্বাচক হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছিলেন ইনজামাম। তার সময়কালেই ২০১৭ সালে পাকিস্তানের ইতিহাসে প্রথমবার  চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জেতে সরফরাজ বাহিনী।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর