× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৯ আগস্ট ২০১৯, সোমবার

বরিশাল থেকে খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলন সূচনা হলো: বিএনপি

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ১৮ জুলাই ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৮:৫৩

বরিশাল থেকে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলন শুরু হল বলে মন্তব্য করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বৃহস্পতিবার বিকেলে বরিশাল হেমায়েত উদ্দিন কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে বরিশালে বিভাগীয় সমাবেশে তিনি এ মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্তি না দিলে আপনাদের শেষ রক্ষা হবে না। এই বরিশাল থেকেই আন্দোলন শুরু হলো। দাবি একটাই। খালেদা জিয়ার মুক্তি। নতুন করে আমরা বরিশাল থেকে যাত্রা শুরু করলাম। সেই যাত্রা হবে গণতন্ত্রের সৈনিকদের মুক্তির যাত্রা।
তিনি বলেন, ছাত্র জনতা, জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবো। দেশনেত্রীকে মুক্ত করতে না পারলে অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিনত হবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, বেগম খালেদা জিয়া গণতন্ত্রের মাতা এই দেশের মানুষের মুক্তির জন্য যিনি আজীবন লড়াই করেছেন সেই নেত্রীর মুক্তির জন্যে আপনারা আজ এখানে এসেছেন। যখন গণতন্ত্রের জন্য দেশনেত্রীর এখানে আসার কথা তখন তিনি কারাগারে আবদ্ধ আছেন। যিনি দেশের মানুষের জন্য লড়াই করেছেন তাকে আজ ভালভাবে রাখা হয়নি। তিনি চিকিৎসার জন্য নিজস্ব চিকিৎকদের সুযোগ দেয়ার দাবি করলেও সে সুযোগ দেয়া হয়নি।

মির্জা আলমগীর বলেন, আমরা হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ সাহেবের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছি। একটা রাজনৈতিক দলের সভাপতির মৃত্যুতে আমরা শোক প্রকাশ করেছি। কিন্তু এটা সত্য যে, হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ সরকারের আমলেই এদেশের গণতন্ত্রকে ধবংস করা হয়েছে। এটা সত্য যে, তার সরকারের আমলেই আমাদের বহু মানুষ, ছাত্র-জনতা নিহত হয়েছে। জনগনের উত্তাল আন্দোলনের মধ্য দিয়ে তাকে সরানো হয়েছে। আজকে আওয়ামী লীগ তাদের সঙ্গে আপোষ করে, তাদের সঙ্গে জোট করে গণতন্ত্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে জনগণের প্রতিপক্ষ হিসেবে অবস্থান েিন্য়ছে।

এর আগে সমাবেশের অনুমতি দেয় বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ (বিএমপি)। এদিকে মহানগর পুলিশের পক্ষ থেকে সমাবেশ ঘিরে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যাবস্থা নেয়া হয়। বিভিন্ন পয়েন্টে গাড়ি থামিয়ে চেক  এবং জনগণকে সমাবেশে আসতে বাধা দেওয়া হয়েছে বলে অনেক নেতা অভিযোগ করেছেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে বরিশাল বিভাগীয় সমাবেশে জনসমুদ্রে রুপ নেয়। বৃহস্পতিবার পুলিশি বাধা উপেক্ষা করে জনসভায় যোগ দেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। বরিশাল মহানগর ও জেলা,ঝালকাঠী, পটুয়াখালী, ভোলা, পিরোজপুর, বরগুণা, গৌরনদী, আগৈলঝড়া, বাকেরগঞ্জ, মুলাদী, হিজলা, মেহেন্দীগঞ্জ, উজিরপুর, বানারীপাড়া, স্বরুপকাঠী, কাউখালী, ভান্ডারিয়া, মঠবাড়িয়া, বেতাগী, পাথরঘাটা, বামনা, আমতলী, মির্জাগঞ্জ, দুমকী, গলাচিপা, দশমিনা, নলছিটি, কাঠালিয়া, রাজাপুর, বাবুগঞ্জ থেকে জনগণ দুপরের আগেই মাঠপ্রাঙ্গনে আসতে থাকে। অনেকে আবার আগের দিন এসেও বরিশাল শহরে অবস্থান নেন। দুপুর ২ টার আগেই নেতাকর্মীরা মাঠে প্রবেশ করতে থাকে। এক সময়  ঈদগা মাঠ ছাপিয়ে পুরো এলাকা পরিণত হয় জনসমুদ্রে। সমাবেশ স্থালে উপস্থিত হওয়া সকলেই ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই, মুক্তি চাই, ‘খালেদা জিয়ার কিছু হলে জ্বলবে আগুন ঘরে ঘরে’, ‘আমার নেত্রী আমার মা বন্দি থাকতে দিবো না’ ইত্যাদি শ্লোগান দিতে থাকে।  
 

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর