× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২২ আগস্ট ২০১৯, বৃহস্পতিবার

মানুষের অধিকার ফিরিয়ে দিয়ে ঘরে যাবো: দুদু

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ২০ জুলাই ২০১৯, শনিবার, ২:৫৭

কৃষকদলের আহবায়ক ও বিএনপি'র ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, আন্দোলন শুরু হয়েছে। নেত্রীকে মুক্ত করে, গণতন্ত্রকে মুক্ত করে, মানুষের অধিকার ফিরিয়ে দিয়েই আমরা ঘরে যাবো।

শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জিয়া পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপি'র চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে প্রতীকী অনশনে এসব কথা বলেন তিনি।
দুদু বলেন, ইতিমধ্যে বিএনপি রাস্তায় নেমেছে। এই রাস্তার আন্দোলনকে বেগবান করার জন্য বরিশালে আমরা সমাবেশ করেছি। আজ সমাবেশ হবে চট্টগ্রামে। ২৫ তারিখে হবে খুলনায়। পর্যায়ক্রমে সব বিভাগে হবে। তারপরে সব জেলাতে সমাবেশ করা হবে। ভাবতে কষ্ট হয়, যে নেত্রী বাংলাদেশের গণতন্ত্রের এরিস্টোটল।
যিনি বাংলাদেশের কৃষক শ্রমিক মেহনতি মানুষের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী। যিনি এদেশের মেহনতী মানুষ কৃষকদের জন্য কাজ করেছেন। আজ সেই দেশনেত্রীকে বন্দি করে রেখেছে একটি মিথ্যা বানোয়াট মামলায় তথা কথিত বিচারের নামে একটি ভয়ঙ্কর পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে।

ছাত্রদলের সাবেক এই  সভাপতি  বলেন, শিক্ষকরা রাস্তায় পেটের তাগিদে। সাংবাদিকদের চাকরির নিশ্চয়তা নেই। শ্রমিকের শ্রমের মূল্য নাই। আদালতে গিয়ে বিচারকের সামনে সন্ত্রাসীরা খুন করছে। এই দেশে পুলিশ প্রশাসন, বিচার ব্যবস্থা, আইন শৃঙ্খলা সবকিছু ভেঙে পড়েছে। এই দেশে স্বাভাবিক কোনো নির্বাচন হয় না। বাংলাদেশের পরিবর্তনের জন্য যে নির্বাচন সেই নির্বাচন ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে ফেলা হয়েছে। তাই আসুন শুধু দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য নয়, এই দেশে একটি সুষ্ঠু পরিবেশ ফিরিয়ে আনার জন্য, গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার জন্য, মানুষের অধিকার ফিরিয়ে আনার জন্য রাস্তায় নামি।

আয়োজক সংগঠনের চেয়ারম্যান কবির মুরাদের সভাপতিত্বে এবং সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব আব্দুল্লাহ হিল মাসুদের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুল কুদ্দুস, সংগঠনের মহাসচিব ড. মমতাজ হোসেন, ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ শফিকুল ইসলাম, কৃষকদলের সদস্য লায়ন মিয়া মোঃ আনোয়ার, কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর