× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২০ আগস্ট ২০১৯, মঙ্গলবার

‘প্রিয়া সাহা রাষ্ট্রদ্রোহিতার অপরাধ করেছেন’

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ২০ জুলাই ২০১৯, শনিবার, ৫:০২

বাংলাদেশে সংখ্যালঘু নির্যাতনের অভিযোগ যুক্তরাষ্ট্রের  প্রেসিডেন্টের কাছে তুলে প্রিয়া সাহা রাষ্ট্রদ্রোহিতার অপরাধ করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, আমি দৃঢ়ভাবে বলতে পারি, বাংলাদেশের কোনো বিবেকবার দেশপ্রেমিক হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের সদস্য প্রিয়া সাহার বক্তব্যের সাথে কোনোভাবেই একমত হবে না। আমি ব্যক্তিগত অনেকের সাথে আলাপ করেছি, তারা এই বক্তব্যের তীব্র নিন্দা করেছে।

ধানমন্ডিতে আওয়ামীলীগের সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।
ওয়াবাদুল কাদের বলেন, তার (প্রিয়া সাহার) বক্তব্যটি সম্পূর্ণ অসত্য  ও কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। এটি একটি নিন্দনীয় অপরাধই শুধু নয়, এই ধরনের উস্কানিমূলক বক্তব্য দেশের অভ্যন্তরে লুক্কায়িত মতলববাজ ও সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীকে সহায়তা করবে। তিনি আরও বলেন, এই বক্তব্যের পর বাংলাদেশের মার্কিন রাষ্ট্রদূতও বলেছেন, এই ধরনের বক্তব্যের কোনো ভিত্তি নেই। বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির চমৎকার একটা পরিবেশ বিরাজ করছে।
এই বক্তব্য দেয়ার পর এনিয়ে আর কোনো দ্বিধাদ্বন্দ্ব থাকার অবকাশ থাকতে পারে না।

ওবায়দুল কাদের বলেন, অবশ্যই দেশের নাগরিক হয়ে দেশের বিরুদ্ধে এই ধরনের অসত্য উদ্দেশ্যমূলক এবং দেশদ্রোহী বক্তব্য রেখেছে। তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতেই হবে এবং সেই প্রক্রিয়া চলছে। আওয়ামী লীগের সঙ্গে প্রিয়া সাহার কোন সাংগঠনিক সম্পর্ক নেই বলে তিনি দাবি করেন তিনি।

প্রিয়া সাহার সঙ্গে আওয়ামলীগের অনেক নেতার ছবি তোলা আছে এমন বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, অনেক অনুষ্ঠানে আমরা যাই, সেখানে অনেককে চিনিও না। অনেকে এসে ছবি তোলে। ছবি তুললেই তো সে আমাদের লোক হয়ে গেল না।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যানের মধ্যে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, উপ দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন উপস্থিত ছিলেন।  

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Nilima
২০ জুলাই ২০১৯, শনিবার, ৯:৩২

In Bangladesh, only the Muslims are tortured, non-Muslims are completely safe here.

sdd
২০ জুলাই ২০১৯, শনিবার, ৮:৫৩

বাংলাদেশে হিন্দু-সহ সংখ্যালঘুদের উপর নির্যাতনের কথা যা হিন্দু ও পার্বত্য উপজাতিরা অভিযোগ করে আসছে প্রিয়া সেটাই ট্রাম্পকে বলেছেন। বাংলাদেশ সরকার একটি মুসলিম রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার লক্ষ্য নিয়ে বরাবর এসব অভিযোগ অস্বীকার করছে। আওয়ামী লীগ জানে এসব অভিযোগ সত্য, তারা নিজেরাও এসব অভিযোগ করে। তাহলে প্রিয়া কেন রাষ্ট্রদ্রোহী? প্রশাসনে ঘাপটি মেরে থাকা পাকি জারজগুলো আওয়ামীলীগকে নীতিভ্রষ্ট করছে।

hobit
২০ জুলাই ২০১৯, শনিবার, ৬:১৪

AlJazzera web blocked in Bangladesh?

অন্যান্য খবর