× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৫ আগস্ট ২০১৯, রবিবার

‘পিটিয়ে হত্যা দেশের জন্য অশনি সংকেত’

অনলাইন

তামান্না মোমিন খান | ২২ জুলাই ২০১৯, সোমবার, ২:৫৮

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা এম হাফিজ উদ্দিন খান বলেছেন, বিচারহীনতার সংস্কৃতির কারেণেই মানুষ আজ আইন নিজের হাতে তুলে নিচ্ছে। বিচার বিভাগ, প্রশাসন ও পুলিশের ওপর মানুষের আস্থা নেই। মানুষ যখন নিজে হাতে আইন তুলে নেয় তখন সেটা একটি দেশের জন্য অশনি সংকেত। যেভাবে ছেলে ধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে নিরাপরাধ মানুষ মারা হচ্ছে এটা সমাজের বিরাট অবক্ষয়। সমাজে নিরাপদে বসবাস করাই কঠিন। যারাই আইন নিজের হতে তুলে নিবে তাদের কঠোর শাস্তি হতে হবে। কিন্তু দেখা যাচ্ছে যে, পুলিশ নিজেই আইন নিজের হাতে তুলে নিচ্ছে। বিচারের আগেই পুলিশের হেফাজতে আসামীকে ক্রসফায়ার বা কথিত বন্দুক যুদ্ধে মেরে ফেলা হচ্ছে।
এখন মানুষও তাই করছে । সবার আগে বিচার বর্হিভূত হত্যা বন্ধ করতে হবে। এখনই শক্ত হাতে এসব দমন করা না হলে সামনে আরো খারাপ সময় আসবে। বিচার বিভাগ, প্রশাসন ও পুলিশের প্রতি মানুষের আস্থা ফিরিয়ে আনতে হবে। মানুষকে বোঝাতে হবে তারা যেন আইন হাতে তুলে না নেয়। গণপিটুনিতে যারা অংশ নিয়েছে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া উচিত। এদেরকে  খুনি হিসেবে বিচার করতে হবে। তা না হলে সমাজে এসব ঘটনা বাড়তেই থাকবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর