× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৪ আগস্ট ২০১৯, শনিবার

গণপিটুনি বিএনপি জামায়াতের কৌশল ইঙ্গিত আইনমন্ত্রীর

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ২৩ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার, ৯:৪২

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, গণপিটুনি নিছক কোনো দুর্ঘটনা নয়। এটা বিএনপি-জামায়াতের একটি নিখুঁত পরিকল্পনা বা কৌশল। দেশকে অস্থিতিশীল করতে তারা এটা করতে পারে। তাই জনগণকে বলে বোঝাতে হবে, তারা যেন গণপিটুনি দিয়ে নিজের হাতে আইন তুলে না নেন। গতকাল বিকালে নেত্রকোনা শহরের কুড়পাড় এলাকায় জেলা আইনজীবী সমিতির নবনির্মিত পাঁচতলা ভবনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

আইনমন্ত্রী বলেন, সম্প্রতি দেখা যাচ্ছে কোনো একটা ঘটনা ঘটলে কিছুদিন ওই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটছে। যেমন- পুরান ঢাকায় অগ্নিকাণ্ডের পরবর্তী কিছুদিনের মধ্যে পরপর কয়েকটি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটলো। আবার পরপর কয়েকটি ধর্ষণের ঘটনা ঘটলো। এখন আবার গণপিটুনি দিয়ে সাধারণ মানুষকে মেরে ফেলার ঘটনা ঘটছে।
এগুলো নিছক দুর্ঘটনা নয়। এগুলো আসলে বিএনপি ও জামায়াত-শিবিরের নিখুঁত ষড়যন্ত্র। এ ব্যাপারে আমাদের সজাগ থাকতে হবে। মন্ত্রী বলেন, ১৯৭৫ সালের পর দীর্ঘ সময় দেশে আইনের শাসন ছিল না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। আইনের শাসন একদিনে প্রতিষ্ঠা হয় না। যে দেশকে (যুক্তরাজ্য) আইনের শাসনের উদাহরণ হিসেবে মনে করা হয়, সেখানেও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করতে দু’শ বছর লেগেছে।

আনিসুল হক আরো বলেন, পদ্মা সেতু নিয়ে সৃষ্ট গুজবে কান দিয়ে যারা গণপিটুনিতে নিরপরাধ মানুষ হত্যা করবে, আইন নিজের হাতে তুলে নেবে, তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। আইন তার নিজস্ব গতিতে চলবে। বিচার বিভাগে যারা আইনজীবী আছেন, বিচারক আছেন, তারাই জনগণকে ন্যায় বিচার দিয়ে যাবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের আইনের শাসনের পথ দেখিয়েছেন। তিনি আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করেছেন। বঙ্গবন্ধুর হত্যার বিচার করেছেন। জনগণ বুঝতে পেরেছে, বিচার যত দেরিই হোক না কেন অপরাধীকে একদিন না একদিন কাঠগড়ায় দাঁড়াতেই হবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি সীতাংশ বিকাশ আচার্য। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন সাধারণ সম্পাদক আমিনুল হক খান। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন- নেত্রকোনা-৩ আসনের সংসদ সদস্য অসীম কুমার উকিল, সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য হাবিবা রহমান খান, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সাজ্জাদুল হাসান, আইন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব বিকাশ কুমার সাহা প্রমুখ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Reza
২৩ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার, ৫:৩৯

HOW FUNNY COMMENT OF MINISTER ! I FEAR YOU MAY SAY PRESENT FLOOD IS ALSO CREATION OF BNP & JAMAT .

Quazi Nasrullah
২২ জুলাই ২০১৯, সোমবার, ৭:২১

ক্ষমা করবেন। মন্ত্রী মহোদয়ের এ মন্তব্যে মনের ভয় আরো বেড়ে গেল।কোথায় যাব, কি করব। এভাবেই কি মারা যাব?

রাহমান
২২ জুলাই ২০১৯, সোমবার, ৭:০১

মিডনাইটের মন্রী সাহেব জনগণকে বুকা ভাবেন কেন অগ্নিকান্ড বলেন আর ধর্রস্ন, খুন, হহ্যা,কুপিয়ে মানুষ মারা এগুলো ***নেতা পেতাদের পেশা তা প্রমানিত তদন্তকমিটি মাধ্যমে

Tanveer Ahmed
২৩ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার, ৩:৫৭

আর কত ? এবার আয়নায় একটু তাকান

Mohammed Moniruzzama
২২ জুলাই ২০১৯, সোমবার, ১১:৩৮

This law minister has mental illness he must see the doctor

জাফর আহমেদ
২২ জুলাই ২০১৯, সোমবার, ১১:৩২

মানুষ পাগল কি সাধে হয়। প্রিয়া শাহর কথা ও তাদের কৌশলের অংশ ‌

মোঃ আরিফ হোসাইন।
২২ জুলাই ২০১৯, সোমবার, ১১:৩১

আপনার মতো একজন দায়িত্বশীল মানুষের নিকট আরো সচ্ছ কথা আশা করি।

অন্যান্য খবর