× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৬ আগস্ট ২০১৯, সোমবার
ব্যারিস্টার সুমনের বিরুদ্ধে মামলা

হবিগঞ্জে বিক্ষোভ

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, হবিগঞ্জ ও চুনারুঘাট প্রতিনিধি | ২৪ জুলাই ২০১৯, বুধবার, ৯:০১

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনের নামে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে হবিগঞ্জ, চুনারুঘাট উপজেলাসহ সারা দেশে। বিশেষ করে হিন্দু-মুসলিম তরুণ ও যুব সমাজের মাঝে দেখা দিয়েছে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া। সর্ব শ্রেণির মানুষ ওই মামলাটি দ্রুত প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন। অন্যথায় বৃহত্তর আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণারও হুমকি দেয়া হয়েছে। সুমনের উপর থেকে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টায় হবিগঞ্জ টাউন হল প্রাঙ্গণ ও শায়েস্তাগঞ্জ গোল চত্বরে অনুষ্ঠিত হয়েছে মানববন্ধন। বিকালে চুনারুঘাট মধ্যবাজারেও মানববন্ধনের ডাক দেয়া হয়েছে। চুনারুঘাটের মানববন্ধন থেকে বৃহত্তর আন্দোলনের ঘোষণা আসবে বলে জানান আয়োজকরা। সোমবার হিন্দু ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানার অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২০১৮ সালের ২৫, ২৮ ও ২৯ ধারায় জনৈক গৌতম কুমার এডবর নামের জনৈক ব্যক্তি বাদী হয়ে সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলা করেন ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনের নামে।
মামলা দায়েরের পর বাংলাদেশ সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিজ্ঞ বিচারক আস-শামস জগলুল হোসেন দায়েরকৃত মামলাটি তদন্ত করে আগামী ২৫শে সেপ্টেম্বরের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলে জন্য ভাষানটেক থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন। মামলায় বাদী গৌতম কুমার এডবর তার জবানবন্দিতে বলেন, ১৯শে জুলাই ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমন ফেসবুকে হিন্দু ধর্ম নিয়ে অশ্লীল বক্তব্য দিয়েছেন। যার কারণে হিন্দু সমাজে চাপা ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। বাদী বলেন, ব্যরিস্টার সুমন হিন্দু ধর্মের পবিত্রতা নষ্ট করেছেন। গৌতম কুমার এডবরের পক্ষে মামলাটি করেন অ্যাডভোকেট সুমন কুমার রায়। এ বিষয়ে ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক বলেন, আমাকে ফাঁসানোর ষড়যন্ত্র হতে পারে এমন চিন্তা করে গত ২৮শে মে ঢাকার শাহবাগ থানায় ভুয়া পেইজের নাম উল্লেখ করে সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। গৌতম কুমার এডবর কর্তৃক দায়ের করা মামলাটি মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক বলে উল্লেখ করেন ব্যারিস্টার সুমন। সুমন আরো বলেন, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্যপরিষদের নেত্রী প্রিয়া সাহা বাংলাদেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করে আমেরিকার প্রেসিডেন্টের কাছে মিথ্যা বক্তব্য দেয়ায় বিশ্বজুড়ে বাংলাদেশিদের মাঝে ব্যপক প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর