× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৬ আগস্ট ২০১৯, সোমবার

শ্রীমঙ্গলে চেতনানাশক খাইয়ে মালামাল লুট

বাংলারজমিন

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি | ২৪ জুলাই ২০১৯, বুধবার, ৯:৫০

শ্রীমঙ্গল শহরের গুহরোডের একটি বাসা থেকে খাবারে চেতনানাশক দ্রব্য মিশিয়ে অজ্ঞান করে তিন পরিবারের নগদ টাকা, স্বর্ণালঙ্কারসহ মালামাল লুট করেছে দুর্বৃত্তরা। এই ঘটনায় নারী শিশুসহ ৫ জনকে অচেতন অবস্থায় শ্রীমঙ্গল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। জানা গেছে, সোমবার দিবাগত রাতে শ্রীমঙ্গল শহরের গুহ রোড এলাকার আনোয়ারা বেগমের বাসার ভাড়াটিয়া ডা. আবুল হোসেন চৌধুরী লিটন ও কমলগঞ্জ উপজেলার প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোশারফ হোসেনের রান্না ঘরের খোলা জানালা দিয়ে কৌশলে তৈরি খাবারে চেতনানাশক দ্রব্য মেশায় অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা। পরে পরিবারের লোকজন এই খাবার খেয়ে অচেতন হয়ে পড়লে রাত পাশের বাসার চাকরিজীবী নজরুল ইসলাম বাসায় না থাকায় আনুমানিক ২টায় দুর্বৃত্তরা জানালার গ্রিল  কেটে ঘরের ভেতরে প্রবেশ করে। বাসার সকলে অচেতন থাকার সুযোগে দুষ্কৃতকারীরা ঘরের লোকজনদের অজ্ঞান করে নগদ টাকা, স্বর্ণালঙ্কারসহ মালামাল লুট করে নির্বিঘ্নে পালিয়ে যায়। সকালে বাসার গৃহকর্মী এসে ডাকাডাকি করলে ডা. আবুল হোসেনের কন্যা লামিয়া চৌধুরী কিছুটা স্বাভাবিক হয়ে উঠলে হঠাৎ শব্দ শুনে দরজা খোলে দেয়। বাসার সকলে ঘুমে থাকায় সে ঘরে ঢুকে  ঘরের কাজ করে রাতের খাবার থেকে খাবার খেলে সেও অচেতন হয়ে পড়ে।
তারপর প্রতিবেশীরা বিষয়টি টের পেয়ে পুলিশে খবর দিলে শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশ এসে ৩ ফ্ল্যাট থেকে নারী শিশুসহ ৫ জনকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর