× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২১ আগস্ট ২০১৯, বুধবার

গোটা দেশেই জাতীয় নাগরিকপঞ্জী চালু হবে : বিজেপি

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ৩ আগস্ট ২০১৯, শনিবার, ১:৩৭

শুধু আসামেই নয়, ভারতের সব রাজ্যেই জাতীয় নাগরিকপঞ্জী চালু করার কথা ফের জানিয়েছে বিজেপি। বিজেপি নেতা তথা মধ্যপ্রদেশের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান শুক্রবার গুয়াহাটিতে সাংবাদিকদের বলেছেন, অবৈধ অভিবাসীদের জন্যে ভারত কোনও ‘ধর্মশালা’ হতে পারে না। তাই এনআরসি কেবল আসামের জন্য নয়, এটি পুরো দেশের জন্যই আবশ্যক এবং আমরা সেটা করবোও। চৌহানের মতে, আমরা দেশকে এমন একটি ধর্মশালায় পরিণত হতে দিতে পারি না, যাতে যেকেউ  অবৈধভাবে দেশে প্রবেশ করতে পারে এবং এখানেই সবসময়ের জন্যে থেকে যেতে পারে। আমরা এর পরিবর্তন করব।  আসামের জন্য আমরা একটি নির্ভুল এনআরসি প্রকাশ করে সুপ্রিম কোর্টের পরবর্তী নির্দেশের অপেক্ষায় থাকব। বিজেপি নেতাদের মতে, বাংলাদেশ থেকে আসামে এসে অবৈধভাবে বসবাস করা মানুষদের দেশ থেকে বিতাড়িত করা সম্ভব একমাত্র দেশের বৈধ নাগরিকদের জাতীয়পঞ্জী তৈরির মাধ্যমেই। এদিকে সুপ্রিম কোর্টের মতে সংবেদনশীল তথ্য গত বৃহস্পতিবার আসাম বিধানসভায় প্রকাশ করা নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। অবশ্য রাজ্য বিধানসভায় এনআরসি সংবেদনশীল খসড়ার তথ্য প্রকাশের সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানিয়ে চৌহান বলেছেন,  সরকার যা-কিছু করেছে, তা তারা সঠিকভাবে চিন্তা করেই করেছে এবং তারপরেই এগিয়েছে।
এদিকে বিরোধী দল কংগ্রেস নাগরিকপঞ্জী করণের গোটা বিষয়টি নিয়ে  তত্ত্বাবধায়ক সুপ্রিম কোর্টকে একটি চিঠি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তাদের অভিযোগ, নাগরিকপঞ্জীকরণের বিষয়ে শীর্ষ আদালতের নির্দেশ মতো যে গোপনীয়তা অবলম্বনের প্রয়োজন ছিল তা লঙ্ঘন করেছে বিজেপি। শুধু তাই নয়, রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে এনআরসির জেলা ভিত্তিক খসড়া তালিকাও ফাঁস করে দিয়েছে শাসক দল, এমনটাও অভিযোগ কংগ্রেসের। অন্যদিকে, অল অসম স্টুডেন্টস ইউনিয়নের সম্পাদক লুরিনজ্যোতি গগৈ বলেছেন, এটি রাজনৈতিক চালাকি ছাড়া আর কিছুই নয়। বিজেপি রাজনৈতিক সুবিধা অর্জন এবং নিজেদের ভোট ব্যাংককে অক্ষত রাখতেই এসব করছে।  

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর