× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার

এমপির পিএস পরিচয়ে ইয়াবা ব্যবসা, প্রতারণা

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম থেকে | ১৯ আগস্ট ২০১৯, সোমবার, ১২:৩৪

চট্টগ্রামের পটিয়া আসনের সংসদ সদস্য ও হুইপ শামসুল হক চৌধুরীর পিএস পরিচয়ে ইয়াবা ব্যবসাসহ নানা রকম প্রতারণামূলক কাজ করে আসছিলেন এহসানুল হক হাসান (২৬)। তবে শেষ রক্ষা হয়নি তার। নগর গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ইয়াবাসহ  গ্রেপ্তার হয়েছেন তিনি।
 
রোববার রাতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। আজ সোমবার সকালে নগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) আসিফ মহিউদ্দীন এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, রোববার দিবাগত রাতে এহসানুল হক হাসানকে চট্টগ্রাম মহানগরীর কোতোয়ালী থানার ফিরিঙ্গিবাজার ব্রিজঘাট এলাকা থেকে থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তার কাছে ৩০০ পিস ইয়াবা পাওয়া যায়।

এহসানুল হক হাসানের বাড়ি চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার শোভনদন্ডী ইউনিয়নের আশাতা গ্রামে। তার বাবার নাম জাফর আহমেদ বলে জানান উপ-কমিশনার আসিফ মহিউদ্দীন।

তিনি বলেন, এহসানুল হক হাসান দীর্ঘদিন ধরে নিজেকে চট্টগ্রামের সংসদ সদস্য ও হুইপ শামসুল হক চৌধুরীর পিএস পরিচয় দিয়ে বিভিন্নজনের কাছ থেকে টাকা দাবি করে আসছিলেন। বিকাশের মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে  নেন। সম্প্রতি পাবনার একজন জনপ্রতিনিধির কাছ থেকে প্রতারণার মাধ্যমে তিনি ৬০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেন। এ অভিযোগের প্রেক্ষিতে তাকে আটক করার জন্য অভিযান চালায় নগর গোয়েন্দা পুলিশ। আটকের পর তার কাছে ৩০০ পিস ইয়াবাও পাওয়া যায়।

উপ-কমিশনার আসিফ মহিউদ্দীন বলেন, প্রতারণার পাশাপাশি তিনি ব্রিজঘাটা এলাকায় ইয়াবা ব্যবসাও করে আসছিলেন। আটকের পর এমপির পিএস পরিচয়ে দীর্ঘদিন ধরে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় ইয়াবা বিক্রি ও প্রতারণার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন তিনি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর