× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বুধবার

ইরানের ১৩ কোটি ডলারের তেলবাহী সেই ট্যাংকার ছেড়ে দিয়েছে জিব্রাল্টার

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৯ আগস্ট ২০১৯, সোমবার, ৩:১৯

ইরানের যে তেলবাহী ট্যাংকারকে কেন্দ্র করে সম্প্রতি ভূমধ্যসাগরে উত্তেজনা ছড়িয়েছে, একের পর এক ট্যাংকার জব্দ করা হয়েছে, সেই ট্যাংকারটি ছেড়ে দিয়েছে জিব্রাল্টার। এক্ষেত্রে ট্যাংকারটিকে আরো বেশি সময় আটকে রাখার যুক্তরাষ্ট্রের শেষ মুহূর্তের অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করেছে জিব্রাল্টার। ফলে রোববার সন্ধ্যার দিকে জিব্রাল্টার থেকে ওই ট্যাংকারটি ভূমধ্যসাগরে পূর্বদিকে অগ্রসর হচ্ছিল। তা গ্রিসের কালামাতায় যেতে পারে বলে মিডিয়ার রিপোর্টে ইঙ্গিত দেয়া হয়েছে। ট্যাংকারটি পাহারা দিতে নৌবাহিনীর একটি টিম প্রস্তুত করেছে তেহরান। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি, আল জাজিরা।
 
গত ৬ই জুলাই থেকে ট্যাংকারটি জব্দ করে জিব্রাল্টার। ওই সময় বৃটিশ রয়েল মেরিন সেনারা সন্দেহ করেন, ট্যাংকারটি সিরিয়ায় তেল সরবরাহ দিতে যাচ্ছে। এ সন্দেহে তারা এটি জব্দ করে। সিরিয়াকে তেল সরবরাহ দেয়া ইউরোপীয় ইউনিয়নের অবরোধের বরখেলাপ। তবে সিরিয়াকে তেল সরবরাহ দেয়ার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে ইরান। তারা বলেছে, ওই ট্যাংকারটি সিরিয়া যাচ্ছিল না।
 
ট্যাংকারটির নাম গ্রেসি-১। কিন্তু এখন তার নাম পরিবর্তন করে নতুন নাম দেয়া হয়েছে আদ্রিয়ান দারিয়া ১। এতে রয়েছে কমপক্ষে ১৩ কোটি ডলারের অশোধিত তেল। এই ট্যাংকারটি জব্দ করায় পারস্য উপসাগরের ভিতরে হরমুজ প্রণালী দিয়ে আন্তর্জাতিক বাজারে তেল সরবরাহে উত্তেজনা দেখা দেয়। এর মধ্যে নৌসীমা লঙ্ঘনের অভিযোগে ১৯ শে জুলাই বৃটিশ পতাকাবাহী ট্যাংকার স্টেনা ইমপেরো’কে জব্দ করে ইরান। ওদিকে সোমবার ইরানের একজন সিনিয়র আইন প্রণেতা বলেছেন, যতক্ষণ পর্যন্ত তাদের ট্যাংকার আদ্রিয়ান দারিয়া ১ তার গন্তব্যে না পৌঁছাবে ততক্ষণ বৃটেনের সঙ্গে ইরানের সঙ্কট শেষ হবে না।
 
ওদিকে শেষ মুহূর্তে বৃহস্পতিবার ইরানি ওই ট্যাংকার আটক রাখার আদেশ প্রত্যাহার করে জিব্রাল্টার। তার একদিন পরে শেষ মুহূর্তে শুক্রবার ট্যাংকারটি আটক রাখার মেয়াদ বাড়াতে ওয়াশিংটন অনুরোধ করে জিব্রাল্টারের প্রতি। জবাবে তারা জানায়, নতুন করে ট্যাংকারটি আটক রাখার জন্য ওয়াশিংটনের অনুরোধ মানবে না জিব্রাল্টার। কারণ, ইরানের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র যে অবরোধ দিয়েছে তা ইউরোপীয় ইউনিয়নের বেলায় প্রযোজ্য নয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর