× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শুক্রবার

লালমনিরহাটে পুত্রবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে শ্বশুর আটক

বাংলারজমিন

লালমনিরহাট প্রতিনিধি | ২০ আগস্ট ২০১৯, মঙ্গলবার, ৮:২৮

আদিতমারী উপজেলায় পুত্রবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে ইউনুস আলী (৪৫) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয়রা। গত রোববার দিনগত রাতে উপজেলার মহিষখোঁচা ইউনিয়নের বারঘড়িয়া শেখেরদীঘি গ্রামে নিজ বাড়ি থেকে তাকে হাতেনাতে আটক করা হয়। তিনি ওই গ্রামের মৃত সহিদার রহমানের ছেলে। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, প্রথম স্ত্রী থাকার পরেও এক ছেলে সন্তানসহ দ্বিতীয় বিয়ে করেন কাঠমিস্ত্রি ইউনুস আলী। ৫-৬ মাস আগে সেই ছেলের বিয়ে দেন। ছেলে (সৎ) কাজের সন্ধানে ঢাকায় অবস্থান করেন। এদিকে পুত্রবধূ ও স্ত্রীকে নিয়ে বাড়িতে থাকতেন ইউনুস। রোববার রাতে ঘুমন্ত পুত্রবধূর ঘরে কৌশলে প্রবেশ করে তাকে ধর্ষণ করে। পুত্রবধূর চিৎকারে স্থানীয়রা এসে ধর্ষক শ্বশুরকে হাতেনাতে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন। এ ঘটনায় গতকাল দুপুরে ওই পুত্রবধূ বাদী হয়ে ধর্ষক শ্বশুর ইউনুস আলীর বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন। তারই পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল দুপুরে তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠায় থানা পুলিশ। নির্যাতিতা পুত্রবধূকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ওই পুত্রবধূ জানান, বিয়ের পর থেকে বেড়াতে যাওয়ার কথা বলে বিভিন্ন স্থানে ভয়ভীতি দেখিয়ে তাকে ধর্ষণ করেন লম্পট শ্বশুর ইউনুস আলী। প্রতিবাদ করলে ছেলের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার হুমকি দেন। রোববার রাতে ঘরে ঢুকে তাকে ধর্ষণ করেন বলে দাবি করেন তিনি।
আদিতমারী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) সাইফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ধর্ষিতার অভিযোগটি আমলে নিয়ে আটক ইউনুস আলীকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর