× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শুক্রবার

মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চলে নতুন করে অস্থিরতা নিহত ১৯

শেষের পাতা

মানবজমিন ডেস্ক | ২২ আগস্ট ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৯:২০

গত এক সপ্তাহ ধরে মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চলে নতুন করে শুরু হয়েছে অস্থিরতা। এতে এখন পর্যন্ত নিহত হয়েছেন কমপক্ষে ১৯ জন। এছাড়া সংঘাতে গৃহহীন মানুষের সংখ্যাও ২ হাজার ছাড়িয়েছে। বুধবার দেশটির সরকারি কর্মকর্তারা এ খবর নিশ্চিত করেছেন। মিয়ানমারের শান্তি ফিরিয়ে আনতে বর্তমান নেতা অং সান সুচির প্রচেষ্টার পথে এটিকে অন্যতম বড় বাধা হিসেবে দেখা হচ্ছে। দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় শান রাজ্যের লাশিও শহরে এই মানুষরা বাস্তচ্যুত হয়। এ বিষয়ে বার্মিজ দুর্যোগ মোকাবিলা অধিদপ্তরের পরিচালক সো নাইং বলেন, আমরা গৃহহীন মানুষ, আহত ও নিহতের পরিবারকে সবধরনের সেবা প্রদান করে যাচ্ছি। যতদিন তাদেরকে আশ্রয় শিবিরে অবস্থান করতে হয় ততদিন তাদেরকে সাহায্য করে যাওয়া হবে।

গত বৃহসপতিবার থেকে এ অঞ্চলে নতুন করে বিদ্রোহ মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে। সরকারবিরোধী নর্দার্ন এলায়েন্স বিদ্রোহীরা একটি আর্মি স্কুলে হামলা চালায়। এতে প্রায় ১ ডজন মানুষ নিহত হয়। এর মধ্যে বেশির ভাগই ছিল সেনাবাহিনীর সদস্য। নোবেলজয়ী অং সান সুকি ২০১৬ সালে ভূমিধস বিজয় নিয়ে ক্ষমতায় আসে। তখন তিনি সংখ্যালঘু গেরিলা গ্রুপগুলোর সঙ্গে শান্তি স্থাপনের লক্ষ্য ঘোষণা করেছিলেন। কিন্তু সমপ্রতি দেশটির কাচিন ও শান রাজ্যে বিদ্রোহ দানা বাঁধতে শুরু করে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর