× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শুক্রবার

পুরুষ অভিভাবকত্ব বাতিলের প্রথম দিনেই দেশ ছাড়লো সহস্রাধিক সৌদি নারী

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২৩ আগস্ট ২০১৯, শুক্রবার, ৮:৫৩

পুরুষ অভিভাবকত্ব বাতিলের প্রথম দিনেই দেশ ছেড়েছেন এক হাজারেরও বেশি সৌদি নারী। গত সোমবার কট্টর রক্ষণশীল দেশটির পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশের সীমান্ত দিয়ে বিদেশে যাত্রা করেছেন ওই নারীরা। এ খবর দিয়েছে সৌদি আরবের সংবাদমাধ্যম আল অ্যারাবিয়া।
এর আগে উদারিকরণ প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে সৌদি আরবে নারীদের ওপর পুরুষ অভিভাবকত্ব বাতিল করে দেশটির কর্তৃপক্ষ। ফলে ২১ বছরের বেশি যে কেউ এখন কারো অনুমতি ছাড়াই বিদেশ সফর করতে পারবে। যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত সৌদি রাষ্ট্রদূত রাজকুমারী রিমা বিন্ত বন্দর বলেন, নারী অধিকারের জন্য নতুন এ পদক্ষেপ ইতিহাস হয়ে থাকবে। উল্লেখ্য, তিনি সৌদি আরবের ইতিহাসের প্রথম নারী রাষ্ট্রদূত। ভবিষ্যৎ অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার স্বার্থে সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান উদারিকরণ পরিকল্পনা গ্রহণ করেন। ফলে দেশটি ক্রমাগত মধ্যযুগীয় বিভিন্ন আইন শিথিল করতে শুরু করে। এরই অংশ হিসেবে গত বছর নারীদের গাড়ি চালানোর অনুমতি দেয় সৌদি আরব। এ ছাড়া, দেশটিতে নিয়মিত বিদেশি সংগীত তারকাদের কনসার্ট আয়োজিত হচ্ছে। সরকারি উদ্যোগে দেশব্যাপী চালু হচ্ছে সহস্রাধিক সিনেমা হলও। সমপ্রতি বহুল সমালোচিত নারীদের ওপর পুরুষ অভিভাবকত্ব প্রথার বিলুপ্তি ঘটায় সৌদি আরব। ফলে এখন পুরুষের পাশাপাশি নারীরাও কারো অনুমতি ছাড়াই ভ্রমণ ও দেশ ছাড়ার সুযোগ পাবে। এর পূর্বে বেশ কয়েকজন সৌদি নারী পারিবারিক নানা অত্যাচারের মুখে দেশ থেকে পালালে তা বিশ্বজুড়ে ব্যাপক আলোচনার জন্ম দিয়েছিলো। ধারণা করা হচ্ছে পুরুষ অভিভাবকত্ব বাতিলের ফলে এমন দেশত্যাগের হার ব্যাপক বৃদ্ধি পাবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর