× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, সোমবার

রামগঞ্জে চাঁদা না দেয়ায় নির্মাণকাজ বন্ধ

বাংলারজমিন

রামগঞ্জ (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি | ২৫ আগস্ট ২০১৯, রবিবার, ৮:৩১

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার পদ্মা বাজারে চাঁদা না পাওয়া সন্ত্রাসী বাবুল ও সিরাজের নেতৃত্বে একটি গ্রুপ স্থানীয় ব্যবসায়ী আবুল কালাম, ইব্রাহিম খলিল সোহাগের নির্মাণাধীন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নির্মাণ বন্ধ করে দিয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত শুক্রবার বিকালে উপজেলার পদ্দা বাজারে। সৃষ্ট ঘটনা বাজার ব্যবসায়ী ও এলাকাবাসীর মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।
সূত্রে জানা যায়, লক্ষ্মীপুর জেলা পরিষদ থেকে ১৯৮৪ সালে লিজ নিয়ে উপজেলার চণ্ডিপুর গ্রামের আ. রব ব্যাপারী ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নির্মাণকাজ শুরু করেন। কয়েক বছর ব্যবসা করার পর প্রতিষ্ঠানটি একই গ্রামের আবুল কালাম ও ইব্রাহিম খলিলের কাছে হস্তান্তর করেন। পরে আবুল কালাম, ইব্রাহিম খলিল ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটি ক্রয় করে ব্যবসা করতে থাকে।
ব্যবসায়ী আবুল কালাম ও ইব্রাহিম খলিল সোহাগ বলেন, কিছুদিন পূর্বে আমরা পুরাতন জরাজীর্ণ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটি ভেঙে নতুন করে নির্মাণকাজ শুরু করলে এলাকার দুষ্কৃতকারী সিরাজ, বাবুল এসে বাধা দিয়ে জোরপূর্বক টাকা দাবি করে। তাদের চাহিদা মোতাবেক টাকা না দেয়ায় বাবুল ও সিরাজ নির্মাণকাজ বন্ধ করে দেয় এবং সার্বক্ষণিক সন্ত্রাসী পাহাড়া বসিয়ে রাখে।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বাবুল মিয়া বলেন, আমরা এলাকায় জনগণের জন্য কাজ করি। সে সুবাদে নিজের পকেটের টাকা-পয়সা দিয়ে কিছু ছেলেপেলের খরচাপাতি চালানো লাগে। এজন্য তাদের কাছ থেকে সমঝোতার মাধ্যমে কিছু টাকা দিতে বলেছি। এটা কোন চাঁদা নয়।
এ ব্যাপারে বাজার কমিটির সভাপতি ডা. আবু তাহের জানান, দীর্ঘ ৩০ বছর থেকে আ. রব বাজারে ব্যবসা করে আসছে। কিন্তু ব্যবসা প্রতিষ্ঠান জরাজীর্ণ হওয়ার কারণে তারা সংস্কারের উদ্যোগ নিলে বাবুল ও সিরাজের নেতৃত্বে একটি গ্রুপ নির্মাণকাজ বন্ধ করে দেয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর