× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার

‘গাছচোরদের আইনের হাতে তুলে দিন’

বাংলারজমিন

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি | ২৬ আগস্ট ২০১৯, সোমবার, ৯:০২

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী আলহাজ মো. শাহাব উদ্দিন বলেছেন, লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান আমাদের একটি সম্পদ। শুধু বাংলাদেশ নয়, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মানুষও আসে এটা দেখার জন্য। তাই এই উদ্যানকে কীভাবে আরো উন্নত করা যায় এটা আমাদের সবাইকে চিন্তা করতে হবে। এই জাতীয় উদ্যানের গাছ কাটা তো দূরের কথা একটি গাছের পাতাও যেন কেউ না ছেঁড়ে তা দেখতে হবে। এই কিছুদিন আগে একটি গাছ কেটে নেয়া হয়েছে। বনের যে প্রহরী ছিল তার ঘরে তালা মেরে না কি গাছ কেটে নেয়া হয়েছে। আগে এটা তদন্ত করে এর প্রতিবেদন এক সপ্তাহের মধ্যে আমার কাছে প্রেরণ করার জন্য ডিএফওকে নির্দেশ দিচ্ছি। কেন এই প্রহরীর ঘরে তালা মেরে গাছ চুরি হলো এটা কতটুকু সত্য মানুষের মনে যেভাবে সন্দেহ হয় তেমনিভাবে আমার মনেও সন্দেহ হয়। তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেবো। আর যাতে লাউয়াছড়ায় গাছ কাটা না হয় সে জন্যসহ ব্যবস্থাপনা কমিটিসহ প্রশাসনের যারা আছেন, বনবিভাগের যারা আছেন সবাইকে নির্দেশ দিয়ে যাচ্ছি। কেউ উদ্যান থেকে একটি গাছ কেটে নেয় দায়ভার বনবিভাগকেই নিতে হবে। গাছচোরদের চিহ্নিত করতে হবে। যারা বনের শত্রু গাছ কেটে গাছ চুরি করে তাদের নামের তালিকা প্রকাশ করতে হবে। প্রয়োজনে ডিসি এসপির সহযোগিতা নেবেন। এই লাউয়াছড়াকে আমরা কীভাবে আরো উন্নত করতে পারি সেজন্য সরকারের পক্ষ থেকে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে আমরা সে উদ্যোগ গ্রহণ করবো। শনিবার বিকেলে মৌলভীবাজারের লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে সহব্যবস্থাপনা কমিটির আয়োজনে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন। বন পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন বলেছেন, লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান এটা আমাদের একটা সম্পদ। যে কারণে আজকে বাংলাদেশে শুধু নয়, বহির্বিশ্বের মানুষও এই লাউয়াছড়া আসে এটা দেখার জন্য। সড়কে ও রেললাইনে কাটা পরার হাত থেকে এ বনের প্রাণীদের কীভাবে জীবন রক্ষা করা যায় চিন্তাভাবনা করছি। পরিকল্পনা গ্রহণ করে ব্যবস্থা নেবো। লাউয়াছড়া সহব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্যবৃন্দ আছেন তারা এ বনের উন্নয়নের জন্য কাজ করবেন। আর পেছনে থেকে যারা ক্ষতি করে তাদের থেকে সতর্ক থাকবেন। কোনো অবস্থায় যাতে এই লাউয়াছড়ার ক্ষতিসাধন না হয় সেদিকে আপনারা দৃষ্টি দেবেন। সহব্যবস্থাপনা কমিটি যেটি মেয়াদোত্তীর্ণ আছে। এই কমিটি যাতে দ্রুত গঠনের ব্যবস্থা নেন সেজন্য ডিএফওকে নির্দেশ দিচ্ছি সবাইকে নিয়ে সুন্দর কমিটি গঠন করবেন। লাউয়াছড়া বনের সহব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি এম মোসাদ্দেক আহমেদ মানিকের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও কমলগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. রফিকুর রহমান, পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ বিপিএম বার, পৌর মেয়র জুয়েল আহমেদ, বিভাগীয় বন কর্মকর্তা আ.ন.ম আবদুল ওয়াদুদ, বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান সিতেশ রঞ্জন দেব প্রমুখ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর