× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার

মুকসুদপুরে অপহরণের দু’দিন পর স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার

বাংলারজমিন

মুকসুদপুর (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি | ২৬ আগস্ট ২০১৯, সোমবার, ৯:০৩

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে অপহরণের দু’দিন পর চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্রের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার  দুপুরে উপজেলার ননীক্ষীর ইউনিয়নের কৃষ্ণনগর এলাকার একটি পুকুর থেকে এ লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত স্যামুয়েল সরকার (১০) একই উপজেলার কলিগ্রামের দানিয়াল সরকারের ছেলে। পুলিশ অপহরণকারীকে গ্রেপ্তার করেছে। এ ঘটনায় এলাকবাসী অপহৃত স্যামুয়েল হত্যার বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে। পারিবারিক ও পুলিশ জানায়, মুকসুদপুর উপজেলার কলিগ্রাম গ্রামের দানিয়াল সরকারের ছেলে ও তালভেড়ী মিশনারি স্কুলে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র স্যামুয়েল সরকারকে (১০) গত শুক্রবার সকাল ৯টার সময় একই এলাকার প্রভাষ মজুমদারের ছেলে রিংকু মজুমদার (৩০) পাখি মারার কথা বলে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে একটি অটো গাড়িতে করে নিয়ে যায়। এরপর স্যামুয়েল নিখোঁজ হয়। অনেক খোঁজাখুঁজির পর রোববার সকালে এলাকাবাসী উক্ত ইউনিয়নের কৃষ্ণনগর দাউদ রত্নার পুকুরে লাশ ভাসতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ মর্গে প্রেরণ করেছে। নিহতের মা জুলিয়া টিয়া সরকার জানায়, গত শুক্রবার সকাল ৯টার দিকে আমার ছেলে স্যামুয়েলকে একই এলাকার রিংকু মজুমদার পাখি মারার কথা বলে নিয়ে যায়। এর পর সে নিখোঁজ থাকে। আমার একমাত্র ছেলের হত্যার বিচার চাই। লাশ উদ্ধারের খবর পেয়ে এলাকাবাসী রিংকুর ফাঁসির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে। এ ঘটনায় পুলিশ ঘাতক রিংকুকে গ্রেপ্তার করেছে। মুকসুদপুর থানার ওসি মোস্তফা কামাল পাশা জানান, লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করেছি। অভিযুক্ত রিংকুকে গ্রেপ্তার করেছি। তাকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর