× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, রবিবার

সিলেটে বিয়ের প্রলোভনে প্রতিবন্ধী যুবতীকে ধর্ষণ, ধর্ষক শ্রীঘরে

দেশ বিদেশ

বিশ্বনাথ (সিলেট) প্রতিনিধি | ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, সোমবার, ৮:৩৩

বিয়ের প্রলোভনে সিলেটের বিশ্বনাথে সারজানা (২১) নামের এক প্রতিবন্ধী যুবতী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। সে সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার রাধানগর গ্রামের আমির আলীর মেয়ে। এ ঘটনায় শনিবার রাতে ধর্ষিতা বাদী হয়ে বিশ্বনাথ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছেন (মামলা নং ৭)। মামলার পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল ভোররাতে ধর্ষক ফরিদ মিয়াকে (২৮) গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ। পেশায় অটোরিকশা চালক ফরিদ বিশ্বনাথ উপজেলার কোনাউরা (নোয়াগাঁও) গ্রামের চেরাগ আলীর ছেলে। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে আত্মীয়তার সুবাদে একে অপরের বাড়িতে যাওয়া আসার একপর্যায়ে ফরিদ ও সারজানার মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গত ৪ বছর ধরে সারজানার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তুলেন ফরিদ। আর তার সঙ্গে প্রতারণা করে ৪ বছর ধরে প্রতিবন্ধী ভাতাও আত্মসাৎ করেন ফরিদ। অবশেষে চলতি বছরের ১লা সেপ্টেম্বর রোববার ফরিদ মিয়া তার বাড়িতে বেড়াতে নিয়ে ধর্ষণ করেন ওই প্রতিবন্ধী সারজানাকে। এরপর তাকে তার বাড়িতে পাঠানো হলে অসুস্থ হয়ে পড়েন ওই সারজানা। পরে গত ৪ঠা সেপ্টেম্বর সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে ভর্তি করা হয় তাকে। আর গত শনিবার রাতে ফরিদকে অভিযুক্ত করে বিশ্বনাথ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন ধর্ষিতা ওই যুবতী সারজানা, (মামলা নং ৭)।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর