× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, রবিবার
অ্যাশেজ থাকছে অস্ট্রেলিয়ার কাছেই

স্টিভ ওয়াহর পর টিম পেইন

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ৮:৪২

২০০১ সালে স্টিভ ওয়াহর নেতৃত্বে ইংল্যান্ডের মাটিতে অ্যাশেজ জিতেছিল অজিরা। এরপর রিকি পন্টিং ও মাইকেল ক্লার্কের মতো গ্রেটরাও ইংল্যান্ডে গিয়ে ব্যর্থ হন। দীর্ঘ ১৮ বছর পর অজিদের সেই আক্ষেপ ঘুচালেন টিম পেইন। রোববার ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে অ্যাশেজের চতুর্থ টেস্টে ইংল্যান্ডকে ১৮৫ রানের বড় ব্যবধানে হারায় অস্ট্রেলিয়া। তাতে পাঁচ ম্যাচ সিরিজে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে সফরকারীরা। শেষ টেস্টে ইংল্যান্ডের কাছে হেরে গেলেও অ্যাশেজের ট্রফি থাকবে অস্ট্রেলিয়ার কাছেই। কারণ ঘরের মাঠে গত অ্যাশেজ জিতেছিল তারা।
স্টিভেন স্মিথের ডাবল সেঞ্চুরিতে ৪৯৭/৮ তোলে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে অস্ট্রেলিয়া। জবাবে ইংল্যান্ড অলআউট হয় ৩০১ রানে। দ্বিতীয় ইনিংসে স্মিথের ৮২ রানের সুবাদে ৬ উইকেটে ১৮৬ রান সংগ্রহ করার পর ইনিংস ঘোষণা করে অজিরা। তাতে ৩৮৩ রানের বড় লক্ষ্য দাঁড়ায় ইংল্যান্ডের সামনে। দ্বিতীয়বার ব্যাট করতে নেমে চতুর্থ দিন শেষে ইংল্যান্ডের সংগ্রহ ছিল ১৮/২। রোববার পঞ্চম দিনে বাকি ৮ উইকেট হারিয়ে ১৯৭ রানে থামে স্বাগতিকরা। ১৭৮ রানে ৮ উইকেট পড়ে যাওয়ার পর নবম উইকেটে জ্যাক লিচ ও ক্রেগ ওভারটন ১৫ ওভার লড়াই করেন। কিন্তু ম্যাচ বাঁচাতে পারেননি। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে প্যাট কামিন্স ৪টি, জশ হ্যাজলউড ও নাথান লায়ন ২টি করে উইকেট নেন। ম্যাচসেরা হন স্মিথ। পুরো সিরিজেই অসাধারণ খেলছেন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। এজবাস্টনে তার জোড়া শতকেই ইংল্যান্ডকে হারিয়ে সিরিজে এগিয়ে গিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। এরপর লর্ডসে দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে দলকে বিপর্যয়ের হাত থেকে বাঁচান তিনি। যদিও মাথায় আঘাত পাওয়ায় দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে পারেননি। ওই আঘাত তাকে হেডিংলিতে তৃতীয় টেস্টে ছিটকে দেয়। ম্যাচটিতে নাটকীয় জয়ে সিরিজে সমতা এনে জো রুট বাহিনী স্বপ্ন দেখছিল অ্যাশেজ পুনরুদ্ধারের। কিন্তু ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে চতুর্থ টেস্টে ফিরেই ইংল্যান্ডকে হাতাশায় ডুবালেন স্মিথ। জয়ের পর স্মিথকে প্রশংসায় ভাসান অধিনায়ক পেইন। তিনি বলেন, ‘আমার দেখা সেরা ব্যাটসম্যান স্মিথ।’ পেইনের কথায় সুর মিলিয়ে অস্ট্রেলিয়ার কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার বলেন, ‘সব ফরম্যাটে পারফরম্যান্স বিবেচনায় বিরাট কোহলি ছিল আমার দেখা সেরা ব্যাটসম্যান। কিন্তু স্মিথের লেভেলটা সত্যিই অন্যরকম।’ এক বছর আগে বল টেম্পারিংয়ের দায়ে স্মিথ নিষিদ্ধ হলে অধিনাকত্ব পান পেইন। এরপর থেকে টেস্টে সময়টা খুব খারাপ যাচ্ছিল তাদের। চলতি বছরের শুরুতে ঘরের মাঠে ভারতের কাছে ২-১ ব্যবধানে সিরিজও খোয়ায় অস্ট্রেলিয়া। সেই দলটিই কী দারুণভাবেই না ফিরে পেল নিজেদের। ১২ই সেপ্টেম্বর ওভালে শুরু হবে অ্যাশেজের পঞ্চম ও শেষ টেস্ট। টিম পেইন জানিয়েছেন, জয় দিয়েই ইংল্যান্ড সফর শেষ করতে চান তারা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর