× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ১৪ জুলাই ২০২০, মঙ্গলবার

ধর্ষণ মামলার ভিকটিম স্কুলছাত্রীর সন্ধান মেলেনি ৬ দিনেও

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা থেকে | ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ৮:৪৬

 খুলনা মহানগরীর আটরা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির ছাত্রী মরিয়ম খাতুন (১৯) পাঁচদিন ধরে নিখোঁজ রয়েছে। সে খানজাহান আলী থানাধীন আফিল জুট মিলস্‌ কলোনির বাসিন্দা ও জুট মিলস্‌ জামে মসজিদের সাবেক মুয়াজ্জিন মো. আব্দুল মতিনের কন্যা। এ ব্যাপারে খানজাহান আলী থানায় সাধারণ ডায়েরি হয়েছে (নং-২১৪, ০৬/০৯/২০১৯)। নিখোঁজ মরিয়মের পিতা আব্দুল মতিন জানান, তার মেয়ে গত ৪ঠা সেপ্টেম্বর বুধবার বিকাল ৫টায় কলোনির বাসা থেকে দোকানে কিছু কিনতে বের হওয়ার পর সে আর বাসায় ফিরে আসেনি। ওইদিন সন্ধ্যায় তাকে শিরোমণি বাজারে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখেছেন কয়েকজন। রাত থেকে সম্ভাব্য সকল স্থানে তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। তার পিতা জানান, গত ২৮শে জানুয়ারি আফিল গেট এলাকার রুস্তম মাস্তানের ছেলে মো. সাগর ও তার দুই বন্ধু আলিম সিটিগেট রেললাইন এলাকার একটি পরিত্যক্ত ভবনের ছাদে নিয়ে গণধর্ষণ করে। এ ঘটনায় তিনি (তার পিতা) বাদী হয়ে খানজাহান আলী থানায় একটি মামলা দায়ের করে (নং-২১, তাং-২৯/০১/২০১৯।
মামলার ৩ আসামি জেলহাজতে রয়েছে। মরিয়মের পিতার ধারণা উক্ত আসামির পরিবারের লোকজনই আমার মেয়েকে অপহরণ করেছে। এ ব্যাপারে খানজাহান আলী থানার ওসি মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, মেয়েটিকে খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে। আগের মামলার সব আসামি বর্তমানে জেলে। প্রয়োজনে তাদেরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর