× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, রবিবার

বুড়িচংয়ে ‘বন্দুকযুদ্ধে ৩ ডাকাত’ নিহত

শেষের পাতা

বুড়িচং (কুমিল্লা) প্রতিনিধি | ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ৮:৫৩

বুড়িচং উপজেলার পীরযাত্রাপুর ইউনিয়নের কোমাল্লা গ্রামের গোমতী নদীর বাঁধ সংলগ্ন এলাকায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত দলের ৩ সদস্য নিহত এবং ৫ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত রোববার রাত ২টা ৩০ মিনিটের
সময় উপজেলার পীরযাত্রাপুর ইউনিয়নের কোমাল্লার গোমতী নদীর বাঁধ এলাকায় ডাকাতি করার প্রস্তুতিকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুড়িচং থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। ডাকাত দল পুলিশের উপস্থিতি বুঝতে পেরে গুলি ছুড়তে থাকে। পুলিশ আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুড়ে। পুলিশের সঙ্গে ডাকাত দলের বন্দুকযুদ্ধের খবর পেয়ে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের এসআই সহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে আরেকটি পুলিশের টিম ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে ডাকাত দল পেছনে হটে যেতে থাকে। এ সময় পুলিশের গুলিতে বুড়িচং উপজেলার সদর ইউনিয়নের জগৎপুর গ্রামের মৃত আবুল হাসেমের ছেলে ডাকাত দলের সদস্য অলি মিয়া (৪২), দেবিদ্বার উপজেলার চরবাকর গ্রামের জয়নাল আবেদীনের ছেলে ডাকাত সদস্য বাবুল মিয়া (৩৮) ও ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার গোপালনগর গ্রামের তাজুল ইসলামের ছেলে এরশাদ মিয়া (২৬) গুলিবিদ্ধ হয় এবং বুড়িচং থানার ওসি আকুল চন্দ্র বিশ্বাস, এসআই মো. মোয়াজ্জেম, এএসআই মহিউদ্দিন, এসআই পুষ্প বরণ চাকমা সহ ৫ পুলিশ সদস্য আহত হন। গুলিবিদ্ধ ডাকাত দলের সদস্যদেরকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাদেরকে মৃত ঘোষণা করেন এবং আহত পুলিশ সদস্যদেরকে চিকিৎসা দেয়া হয়। নিহতদের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে ৭টি মুখোশ, ১টি পিস্তল, ১টি পাইপগান, ৪ রাউন্ড তাজা গুলি, ১ রাউন্ড গুলির খোসা, ৬টি কাঠের বাঁটযুক্ত ছোরা ও রামদা, ৩টি মোবাইল, ২টি টর্চলাইটসহ ডাকাতির বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত ডাকাত সদস্যদের বিরুদ্ধে হত্যা, অস্ত্র, ডাকাতিসহ বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর